১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি:  ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে চলচ্চিত্র উৎসবের মুখ   করে শিলিগুড়িতে আয়োজিত হতে চলেছে গ্লোবাল সিনেমা  ফেস্টিভ্যাল। এই উৎসবকে ঘিরে চাঁদের হাট বসতে চলেছে শিলিগুড়িতে। এই প্রথমবার ফিল্ম ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া এবং রাজ্যের পর্যটন দপ্তরের যৌথ উদ্যোগে এই  চলচ্চিত্র উৎসবের জন্য শিলিগুড়িকে বেছে নেওয়া হয়েছে। চলচ্চিত্র উৎসব চলবে ২১ থেকে ২৫ আগস্ট অবধি। এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এমনটাই জানান ফিল্ম ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ার সভাপতি ফিরদৌস উল হাসান।

[আরও পড়ুন:  পুলিশি বাধার মুখে বিজেপির মিছিল, রণক্ষেত্র বারাকপুর]

ফ্যাশন শো উপলক্ষে ‘শো স্টপার’ হিসেবে থাকছেন আরও একঝাঁক তারকা। ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত তো বটেই, সঙ্গে উপস্থিত থাকছেন বাংলা চলচ্চিত্রের পরিচিত অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, গার্গী রায়চৌধুরী এবং প্রাঞ্জল ভাট। চলচ্চিত্র উৎসব উপলক্ষে উপস্থিত থাকার কথা অভিনেতা ও প্রযোজক বলিউড তারকা রণধীর কাপুর, প্রযোজক তথা পরিচালক রাহুল রাওয়াল,  বিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা ইন্দ্র কুমার, অনিল শর্মা এবং অসিত মোদি। থাকবেন রাজ্য সরকারের বেশ কিছু মন্ত্রী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিরাও।

শিলিগুড়ি শহরের তিনটি কেন্দ্রকে বেছে নেওয়া হয়েছে চলচ্চিত্র উৎসবের জন্য। দীনবন্ধু মঞ্চ, রবীন্দ্র ভবন এবং নিউ সিনেমা প্রেক্ষাগৃহ। এই তিনটি জায়গায় আগামী ২১ থেকে ২৫ আগস্ট অবধি চলচ্চিত্র উৎসব হবে। পূর্ণদৈর্ঘ্যের আন্তর্জাতিক ও জাতীয় চলচ্চিত্রের পাশাপাশি শর্ট ফিল্ম দেখানো হবে বলে এদিন সাংবাদিক বৈঠকে জানানো হয়েছে। এদিন পর্যটনমন্ত্রী চলচ্চিত্র নির্মাতাদের আরও বেশি করে উত্তরবঙ্গে শুটিংয়ে অংশ নেওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। শুটিং করতে এলে যে কোনও রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না। এবং এক্ষেত্রে সবরকম সহযোগিতা করবে পর্যটন দপ্তর বলেও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

[আরও পড়ুন:  আঠা ব্যবহার করে চুরি! দুই ‘গুণধর’ চোরের কীর্তিতে হতবাক পুলিশ]

অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত তাঁর ডুয়ার্স এবং উত্তরবঙ্গের প্রতি ভাল লাগার কথা শেয়ার করেন অনুষ্ঠানে। তিনি জানান, এই চলচ্চিত্র উৎসবের মূল লক্ষ্য দেশের সমস্ত জায়গায় চলচ্চিত্রকে ছড়িয়ে দেওয়া। সেই উদ্দেশ্য অনেকটাই সফল হবে যদি স্থানীয়স্তরে আরও বেশি শুটিংয়ের আয়োজন করা যায়। পাশাপাশি এখানে ছায়াছবি তৈরির পরিকাঠামোগত কিছু ব্যবস্থা থাকলে আরও বেশি করে সিনেমার শুটিং করা সম্ভব হবে। তার নিজের এবং জাতীয়স্তরে প্রচুর বিখ্যাত চলচ্চিত্রের শুটিং হয়েছে দার্জিলিং, কালিম্পং, কার্শিয়াং, ডুয়ার্স থেকে শুরু করে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায়। আর ঠিক এই বিষয়টির উপরই বিশেষ জোর দেন তিনি। পাশাপাশি কাশ্মীরে ৩৭০ প্রত্যাহারের পদক্ষেপকেও স্বাগত জানান তিনি। তিনি চান কাশ্মীর কে ব্যবহার করে আরও অনেক বেশি চলচ্চিত্র তৈরি হোক।

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং