ad
ad
Fire

পাঁশকুড়া থানার গুদামে অগ্নিকাণ্ড, সিভিক ভলান্টিয়ারের মৃত্যু

বাজেয়াপ্ত করা বাজিতে বিস্ফোরণের জেরে দুর্ঘটনা বলে প্রাথমিক অনুমান।

Fire at Panskura police station's godown, civic volunteer dead | Sangbad Pratidin
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:December 1, 2022 5:13 pm
  • Updated:December 1, 2022 6:13 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়া থানায় (Panshkura PS) ভয়াবহ দুর্ঘটনা। থানার গুদামে বাজেয়াপ্ত করে রাখা শব্দবাজি বিস্ফোরণে অগ্নিকাণ্ড। আগুনে মৃত্য়ু হল এক সিভিক ভলান্টিয়ারের।  আগুনে পুড়ে ছাই থানার বাইরে রাখা একটি বাইকেও।  শুরু হয়েছে তদন্ত। উদ্ধার করা হয়েছে মৃত সিভিক ভলান্টিয়ারের (Civic Volunteer) দেহ। 

[আরও পড়ুন: প্রশ্ন ভুল মামলা: SSC-কে আদালত অবমাননার নোটিসের পরই নিয়োগপত্র পেলেন ৭ চাকরিপ্রার্থী]

জেলাজুড়ে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে প্রচুর শব্দ ও আতসবাজি (Fire crackers) উদ্ধার করে থানার গুদামে রাখা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার বিকেল নাগাদ আচমকাই সেই গুদামে আগুন (Fire) লেগে যায়। প্রচুর দাহ্য পদার্থ হওয়ায় হু হু করে তা ছড়িয়ে পড়ে আশেপাশে। প্রাথমিকভাবে আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগিয়েছিলেন থানার কর্মীরা। তাতে অগ্নিদগ্ধ হন এক সিভিক ভলান্টিয়ার। তাঁকে তড়িঘড়ি পাঁশকুড়া সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু বাঁচানো যায়নি। কিছুক্ষণ পরই মৃত্যু হয় তাঁর।  আগুন লেগে পুড়ে যায় একটি বাইক। গুদামের বাইরে থাকা অন্যান্য় গাড়িগুলিকে নিরাপদে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়েছে।

 

জানা গিয়েছে, মৃত সিভিক ভলান্টিয়ারের নাম গোপাল মান্না। তাঁর বাড়ি হাউরের বড়দাবাড় গ্রামে। কালীপুজোর আগে পাঁশকুড়া ও জেলার অন্যান্য এলাকায় অভিযান চালিয়ে বাজি বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। সেসব রাখা ছিল থানা সংলগ্ন গুদামে। এদিন সেই স্তূপেই আগুন লেগেছে। এই ঘটনায় প্রশ্ন উঠছে, এতদিন পরও কেন সেসব বাজি নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে নিষ্ক্রিয় করা হয়নি? তা করা হলে আজকের মতো বিপদ ঘটত না বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহলের একাংশ।

[আরও পড়ুন: রাজকোষ ঘাটতি ছুঁয়েছে ৭.৫৮ লক্ষ কোটি! নয়া তথ্যে বাড়ছে আশঙ্কা]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ