BREAKING NEWS

১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বিসর্জনের পর মদের টাকা চাইতেই সংঘর্ষ-বোমাবাজি, দুই পাড়ার অশান্তিতে উত্তপ্ত দুর্গাপুর

Published by: Paramita Paul |    Posted: October 17, 2021 9:52 am|    Updated: October 17, 2021 9:52 am

Group of people hurled crude bombs and vandalised vehicles after immersion of Goddess Durga idol in Durgapur | Sangbad Pratidin

উত্তপ্ত দুর্গাপুর। ছবি: উদয়ন গুহ।

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: দুর্গাপুজোর বিসর্জন শেষ হতেই উত্তপ্ত দুর্গাপুর (Durgapur)। মদ খাওয়ার টাকা চাওয়া নিয়ে অশান্তিতে জড়িয়ে পড়ে দুই পাড়ার দুই গোষ্ঠী। আর সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চলে বোমাবাজি। ভাঙচুর করা হয় গাড়িও। যদিও পরে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অভিযুক্তদের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ।

শনিবা রাতে ঘটনাটি ঘটে দুর্গাপুরের বেনাচিতির অন্নপূর্ণা নগর এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে খবর, রাত ১০টা নাগাদ প্রতিমা নিরঞ্জন সেরে ফিরে ছিল ওই পাড়ার বাসিন্দারা। শোভাযাত্রা থেকে ফিরে মন্দিরের সামনে মিষ্টিমুখ করছিলেন তাঁরা। এমন সময় পাশের পাড়ার একদল ছেলে এসে মদ খাওয়ার টাকা চায় বলে অভিযোগ। সেই টাকা দিতে অস্বীকার করায় অন্নপূর্ণা নগরের কয়েকজন কিশোরকে মারধর করা হয় বলে দাবি। পালটা কিশোররাও ধাক্কা দেয় তাদের। এর পরই পাশের পাড়ার কয়েকজন যুবক দলবল নিয়ে এসে বোমা ছোড়ে বলে অভিযোগ।

[আরও পড়ুন: নথি জাল করে বেআইনিভাবে ভারতে প্রবেশ, ব্যান্ডেল থেকে গ্রেপ্তার ৬ বাংলাদেশি]

অন্নপূর্ণা নগরের বাসিন্দা সোমনাথ সাহার অভিযোগ, “ওরা এসে প্রথমে আলোতে শর্ট সার্কিট করে দেয়। মন্দিরের সামনে পাড়ার বাচ্চা ও মহিলারা দাঁড়িয়েছিল। সেখানে বোমাবাজি করে তারা। টিউবলাইটও ভাঙে। পরে বাইক, গাড়িও ভাঙচুর করে।” স্থানীয় সূত্রে খবর, দুই পাড়ার মধ্যে গণ্ডগোল বহুদিনের। গত কয়েকদিন ধরেই চাপা উত্তেজনা ছিলই। শনিবার রাতে তা মারাত্মক আকার নেয়।

উত্তপ্ত দুর্গাপুর। ছবি: উদয়ন গুহ।

[আরও পড়ুন: জালনোট পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে আক্রান্ত পুলিশ, মালদহের সীমান্ত এলাকায় তুমুল উত্তেজনা]

খবর পেয়ে ছুটে আসে বিশাল পুলিশবাহিনী। তাঁরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। যদিও বোমাবাজির অভিযোগ অস্বীকার করেছে পুলিশ। তবে ঘটনাস্থল থেকে বোমাবোঝাই ব্যাগ উদ্ধার করেছে পুলিশ।এ প্রসঙ্গে এসিপি (পূর্ব) ধ্রুৱজ্যোতি মুখোপাধ্যায় জানান, “মদ খাওয়া নিয়ে গন্ডগোল বলেই মনে হচ্ছে। তদন্ত করে দেখা হবে। বোমাবাজির কোনও খবর পাইনি। দোষীদের খোঁজা হচ্ছে। এটা সম্পূর্ণই এলাকার ঝামেলা। এর মধ্যে অন্য কোনও অনুষঙ্গ নেই। পুলিশ গোটাটাই তদন্ত করে দেখছে। অভিযোগ এসেছে বাইক ভাঙচতুর করা হয়েছে, মহিলাদের গায়েও নাকি হাত দেওয়া হয়েছে। সবটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে