১০ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: এবার ব্যাংক জালিয়াতির শিকার প্রাক্তন সেনা কর্মী। নিজের অজান্তেই তাঁর ব্যাংক থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই মাথায় হাত ওই ব্যক্তির। ইতিমধ্যেই গোটা বিষয়টি জানিয়ে সোনারপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন প্রতারিত প্রাক্তন সেনা কর্মী।

জানা গিয়েছে, শনিবার সকালে ১ লক্ষ টাকা ফিক্সড ডিপোজিট করতে ব্যাংকে যান প্রাক্তন সেনাকর্মী তথা বর্তমানে রেলে কর্মরত সোনারপুরের শীতলা এলাকার বাসিন্দা নবেন্দু মণ্ডল। সেই সময় তিনি জানতে পারেন যে তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা। এরপরই সোনারপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, শহরের বুকে এটিএম জালিয়াতির ঘটনায় জড়িত যে চক্র তারাই এই ঘটনার সঙ্গেও জড়িত। নবেন্দুবাবু জানান, দীর্ঘদিন ধরে তাঁর মোবাইলে বিভিন্ন মেসেজ আসত। কিন্তু কোনও দিনই সেগুলি পড়ে দেখননি তিনি। তাঁর কথায়, মেসেজগুলি দেখতে পেলে অনেক আগেই গোটা বিষয় প্রকাশ্যে আসত।

[আরও পড়ুন: বাড়ির অমতে বিয়ে, শ্বশুরবাড়িতে ঢুকে মেয়েকে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা বাবার]

প্রসঙ্গত, সপ্তাহ খানেক আগে যাদবপুর এলাকার একাধিক গ্রাহকের অজান্তেই অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে টাকা। নিমেষে কারও অ্যাকাউন্ট থেকে উবে গিয়েছে পনেরো হাজার টাকা। কারও আবার তিরিশ হাজার। কারও তার থেকেও অনেকটা বেশি। আচমকা মোবাইলে মেসেজ আসার পর গ্রাহকেরা জানতে পেরেছেন যে তাঁদের অ্যাকউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হয়েছে টাকা। তড়িঘড়ি ব্যাংকে যোগাযোগ করে অ্যাকাউন্টগুলি বন্ধ করে দেন গ্রাহকেরা। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের পাশাপাশি বেসরকারি ব্যাংকের গ্রাহকেরাও একইভাবে প্রতারিত হয়েছেন। একে একে যাদবপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন সকলে। উত্তরের বাসিন্দাদের অ্যাকাউন্ট থেকেও উধাও হয় টাকা। ৩ দিনে প্রায় ৫০টির কাছাকাছি অভিযোগ জমা পড়ে থানায়। ইতিমধ্যেই সেই জালিয়াতির ঘটনায় জড়িতদের খোঁজে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: বাড়ির অমতে বিয়ে, শ্বশুরবাড়িতে ঢুকে মেয়েকে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা বাবার]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং