BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

লাগাতার বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত উত্তরবঙ্গ, চার জেলায় ভারী বর্ষণের সতর্কতা জারি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 26, 2018 5:19 pm|    Updated: June 26, 2018 5:19 pm

Heavy rain lashes North Bengal,  4 Districts on alert

সংবাদ প্রতিদিন ব্যুরো: বর্ষার শুরুতেই জনজীবন বিপর্যস্ত উত্তরবঙ্গে। সবচেয়ে খারাপ অবস্থা ডুয়ার্সের মালবাজারের। লাগাতার বৃষ্টিতে জল জমে গিয়েছে শহরের নিচু এলাকায়। জল বেড়েছে মুজনাই, কালজানি ও ডিমা নদীতে। তবে আপাতত বিপদের সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে প্রশাসন। দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটে আত্রেয়ী নদীর স্রোতে ভেসে গিয়েছে এক অস্থায়ী বাঁশের সাঁকো। বিপাকে পড়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। আগামী ২৭ জুন বর্ষা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে উত্তরবঙ্গে আসছেন সেচমন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র। আগামী চার দিন আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি ও কোচবিহারে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দপ্তর।

[গরম করতেই পোড়া গন্ধ, এবার প্লাস্টিক দুধের আতঙ্ক বালুরঘাটে]

প্রতি বছর উত্তরবঙ্গ দিয়ে বর্ষা ঢোকে এ রাজ্যে। তবে এবার সেই নিয়মের ব্যতিক্রম ঘটেছে। শেষবেলায় পথ বদলেছে বর্ষা। আগে বৃষ্টি নেমেছে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে। তবে সোমবার থেকে উত্তরবঙ্গেও লাগাতার বৃষ্টি চলছে। এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে জলপাইগুড়ির ময়নাগুড়ি ও ডুয়ার্সে। ভোর থেকে তুমুল বৃষ্টিতে কার্যত জলবন্দি ময়নাগুড়ি ও মালবাজার শহরের বাসিন্দারা। অনেক বাড়িতে জল ঢুকেছে। ময়নাগুড়িতে জলবন্দি মানুষদের উদ্ধার করতে স্পিডবোট নামিয়েছে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর। জল বেড়েছে মুজনাই, কালজানি ও ডিমা নদীতে। জল বাড়ছে মানসাই ও সঙ্কোশ নদীতেও। আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটায় মুজনাই নদীর চর লাগোয়া বেশ কয়েকটি এলাকা প্লাবিত। জল জমেছে আলিপুরদুয়ার শহরের নিচু এলাকায়ও। বৃষ্টি জমা জলে সাপ ও মশার উপদ্রবে আশঙ্কায় আতঙ্কিত স্থানীয় বাসিন্দারা। উত্তরবঙ্গে সেচ দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়ার নীরজ কুমার সিং জানিয়েছেন, ‘পরিস্থিতি মোটের উপর ভাল। তবে আমরা প্রস্তত।’  আগামী ২৭ জুন বর্ষা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে উত্তরবঙ্গে আসবেন সেচমন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র। আগামী চার দিন আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি ও কোচবিহারে জারি হয়েছে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি সতর্কতা।

এদিকে, মঙ্গলবার সকালে প্রবল বৃষ্টিতে দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটে আত্রেয়ী নদীতের স্রোতে ভেসে গিয়েছে একটি অস্থায়ী বাঁশের সাঁকো। শহরের রঘুনাথপুর ও কালিকাপুরের মধ্যে সংযোগ রক্ষাকারী ওই সেতুটি ব্যবহার করেন কয়েক হাজার মানুষ। এখন প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে নৌকার চেপে স্রোতস্বিনী আত্রেয়ী নদী পেরোচ্ছেন তাঁরা।

ছবি: রতন দে

[‘যাবেন না স্যর’, থানার বড়বাবুর পথ আটকে গোটা গ্রাম]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে