১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ২৯ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

লালগড়ে রয়্যাল বেঙ্গলের মৃত্যুর তদন্তে এবার কেন্দ্রীয় সংস্থা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 2, 2019 5:12 pm|    Updated: August 2, 2019 5:24 pm

IG of National Tiger Conservation visited Lalgarh Jungle for investigation

সম্যক খান, মেদিনীপুর: দেড় বছরের মাথায় লালগড়ে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের মৃত্যুর ঘটনার তদন্তে নামল কেন্দ্রীয় সংস্থা৷ বিশ্ব ব্যাঘ্র দিবসে বাঘঘরা জঙ্গলে বাঘের মৃত্যুতে কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে তদন্তের ঘোষণা করা হয়েছিল কেন্দ্রের তরফে৷ পূর্বঘোষণা অনুযায়ী শুক্রবার সকালেই ওই এলাকায় যান জাতীয় ব্যাঘ্র সংরক্ষণ কর্তৃপক্ষের পূর্বাঞ্চলীয় শাখার আইজি ডব্লু লংবাহা৷

[ আরও পড়ুন:‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচিতেও গোষ্ঠীকোন্দল, দ্বন্দ্বে জড়ালেন আরাবুল-রেজ্জাক ]

গত বছরের ১৩ এপ্রিল মেদিনীপুর সদর ব্লকের মানুষজন বাঘের হামলার মুখে পড়েছিলেন৷ রাতদুপুরে বাঘের আতঙ্কে তটস্থ হয়ে ছিলেন তাঁরা৷ এনিয়ে বনদপ্তরের যখন মাথার ঘাম পায়ে পড়ার উপক্রম, বাঘঘরা জঙ্গলে সেইসময়েই উদ্ধার হয় পূর্ণবয়স্ক একটি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের দেহ৷ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় বল্লমের ক্ষতচিহ্ন৷ মনে করা হয়, আত্মরক্ষার্থে বাঘটিকে খুঁচিয়ে খুন করেছে স্থানীয় গ্রামবাসীরাই৷ সেই ঘটনা নিয়ে সেসময় তোলপাড় পড়ে গিয়েছিল গোটা রাজ্যেই৷ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট খতিয়ে দেখে বোঝা যায়, আদিবাসীদের শিকার উৎসব চলাকালীন তাদের অস্ত্রেই মৃত্যু হয়েছে বাঘটির৷

সেই ঘটনার পর দেড় বছর কেটে গিয়েছে৷ বন্যপ্রাণ সংরক্ষণে দ্বিতীয় মোদি সরকার আরও উদ্যোগী৷ বিশ্ব ব্যঘ্র দিবসে তথ্য-পরিসংখ্যান দিয়ে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশজুড়ে বাঘের সংখ্যা বেড়েছে৷ এই পরিস্থিতিতেই লালগড়ে বাঘের মৃত্যু নিয়ে কেন্দ্রীয় তদন্তের কথা ঘোষণা করে কেন্দ্র৷ এই ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে আবার প্রশ্ন ওঠে, পশ্চিমবঙ্গে বাঘের মৃত্যুতে কেন্দ্রীয় পর্যায়ের তদন্ত হলে, মহারাষ্ট্র এবং উত্তরপ্রদেশে বাঘ পিটিয়ে খুনের তদন্ত কেন হবে না?

[ আরও পড়ুন: ধসের পর মেরামতির কাজ শুরু জাতীয় সড়কে, স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে ডায়মন্ড হারবার়]

এসব প্রশ্ন চাপা দিয়েই পূর্বঘোষণামতো শুক্রবার বাঘঘরার জঙ্গলে পৌঁছান জাতীয় ব্যঘ্র সংরক্ষণ কর্তৃপক্ষের পূর্বাঞ্চলীয় শাখার আইজি ডব্লু লংবাহা৷ এদিন সকাল ১০টা নাগাদ জঙ্গলে পৌঁছন তিনি৷ সঙ্গে ছিলেন রাজ্যের প্রধান মুখ্য বনপাল শক্তিশংকর দে৷ বাঘঘরা জঙ্গলে যেখানে বাঘের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছিল, সেই জায়গাটি ভাল করে পর্যবেক্ষণ করেন৷ স্থানীয় বাসিন্দাদের দু-একজনের সঙ্গে কথা বলেন৷ এরপর এলাকার বনকর্মী, আধিকারিকদের সঙ্গে সংক্ষিপ্ত একটি বৈঠক করেন৷ লংবাহা জানান, রাজ্যের তরফে বাঘের মৃত্যু সংক্রান্ত সমস্ত রিপোর্ট তিনি খতিয়ে দেখেছেন৷ ময়নাতদন্তের রিপোর্টও ভালভাবে দেখা হয়েছে৷ এদিন মেদিনীপুরের বনাধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন৷ তার মধ্যে এখান থেকে ফিরে গিয়ে তিনি একটি রিপোর্ট দেবেন৷ তার ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে