১২ আষাঢ়  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শ্রীকান্ত পাত্র, ঘাটাল:  একমাস ব্যাপী ভোট উৎসব চলার পর সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ফল হাতে। ঘাটাল কেন্দ্র থেকে লক্ষাধিক ভোটে বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষকে হারিয়ে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী দেব ওরফে দীপক অধিকারী। ভোটে জিতেই সবাইকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দেশের জন্য এবং দশের জন্য কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন দেব। তিনি বলেন, “কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। শুধু ঘাটাল নয়, গোটা দেশের জন্য একথা প্রযোজ্য। এটা মানুষের রায়। আর জনগণের রায়কে আমি সম্মান করি।”

[আরও পড়ুন: নেত্রীর ভরসা রাখলেন মিমি-নুসরত, বিপুল ভোটে জয়ী তৃণমূলের নতুন তারকা প্রার্থীরা]

প্রার্থী ঘোষণার পর থেকেই রাজনীতির লড়াইয়ের সহজ অস্ত্র ‘কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি’ থেকে শতহস্ত দূরে থেকেছেন দেব। পাঁচ বছর রাজনীতির ময়দানে এখন অনেকটাই পোক্ত তিনি। ঘাটালে উত্তপ্ত নির্বাচনী পরিস্থিতেও মাথা ঠাণ্ডা রেখে সেই পরিণতমনস্কতার পরিচয়ই দিয়েছেন তিনি। “কোনও কুৎসা নয়, সন্ত্রাস নয়৷ মানুষ যেন সুস্থ, শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে পারেন,” একাধিকবার সেই আরজি-ই রেখেছিলেন।

নির্বাচনী ফলের আগের দিন, বুধবারও নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় জনগণের উদ্দেশে বার্তা দিয়েছেন তৃণমূলের এই তারকা প্রার্থী। আর এহেন সৌজন্যের সুর-ই দেবের গলায় শোনা গেল বৃহস্পতিবার। নিজের জায়গা থেকে আবারও জিততে পেরে যারপরনাই খুশি এই অভিনেতা। তিনি বলেন, “আমি কেশপুরের ভূমিপুত্র। আর তার একটা সুবিধে তো থাকেই। ২০১৪-তেও এখানকার মানুষেরা আমার উপর আশীর্বাদ বর্ষণ করেছিলেন। এবারও তাঁরা সেই ভরসা রেখেছেন। ভালবেসে আমায় ফিরিয়ে নিয়ে এসেছেন। অসংখ্য ধন্যবাদ সবাইকে। ভারতের উন্নয়নের কাজে যেন সবাই একসঙ্গে এগিয়ে আসেন, সেই কামনাই করি। পাশাপশি, প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষকেও শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেছেন, উনি প্রচুর খেটেছেন নির্বাচনের সময়। ওনার সঙ্গে দেখা হয়নি। গণনাকেন্দ্রের ভিতরে দেখা হলে, নিশ্চয় নিজে এগিয়ে গিয়ে শুভেচ্ছা জানাব।

[আরও পড়ুন: সেলুলয়েডের প্রধানমন্ত্রীকে প্রাণহানির হুমকি মাওবাদীদের, বাড়ল নিরাপত্তা]

জয়ী নেতাদের উদ্দেশেও শুভেচ্ছা বার্তা দিয়েছেন ঘাটালের বিজয়ী তৃণমূল প্রার্থী দেব। তাঁর বক্তব্য, “দেশের প্রত্যেকটা দলের প্রত্যেকটা প্রার্থীই নির্বাচনের জন্য খেটেছেন। পশ্চিমবঙ্গের গ্রামাঞ্চল তথা সারা ভারতবর্ষে যেন উন্নয়নে জোয়ার আসে, সেই কামনাই করব। দেশের স্বার্থে, দশের স্বার্থে কাজ হোক, এটাই চাই।”

প্রসঙ্গত, ঘাটাল কেন্দ্রে নির্বাচনের সময় ভারতী ঘোষ বুথে রিগিং হওয়ার দাবি জানিয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার এপ্রসঙ্গে দেবকে জিজ্ঞেস করা হলে, হাসিমুখে দেব উত্তর দেন, “এর জন্য নির্বাচন কমিশন রয়েছে, পুলিশ রয়েছে। উনি চাইলেই নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়ে অভিযোগ জানাতে পারেন।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং