৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

বিপ্লবচন্দ্র দত্ত, কৃষ্ণনগর:  ঘটনার পর প্রায় এক সপ্তাহ পেরিয়ে গিয়েছে। নদিয়ায় ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দেওয়ায় যুবককে পিটিয়ে খুনে ঘটনায় মূল অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করল নবদ্বীপ থানার পুলিশ। বৃহস্পতিবার ভোরে শংকর দেবনাথ নামে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। ধৃতকে চারদিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

[আরও পড়ুন: ধোনি আউট হওয়ার পরই হৃদরোগে আক্রান্ত, মৃত্যু ক্রিকেটভক্তের]

কাজের সুবাদে চেন্নাইয়ে থাকতেন। বছর দেড়েক বাদে ছুটিতে নবদ্বীপের বাগানেপাড়ার বাড়িতে এসেছিলেন বছর একত্রিশের যুবক কৃষ্ণ দেবনাথ। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, গত সপ্তাহের বুধবার সন্ধেবেলা মদ্যপ অবস্থায় নবদ্বীপ-কৃষ্ণনগর রাজ্যসড়কে যান চলাচলে বাধা দিচ্ছিলেন কৃষ্ণ। অভিযোগ, এরপরই তাঁর উপর চড়াও হয় বেশ কয়েকজন যুবক। শুরু হয় মারধর। কারও কারও দাবি, যখন মারধর করা হচ্ছিল, তখন ‘জয় শ্রীরাম’ ও ‘নরেন্দ্র মোদি জিন্দাবাদ’ স্লোগান তুলেছিলেন আক্রান্ত যুবক। গুরুতর জখম অবস্থায় কৃষ্ণ দেবনাথকে প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় গ্রামীণ হাসপাতালে। কিন্তু শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় কলকাতায়। গত বৃহস্পতিবার মারা যান তিনি। ঘটনার ইন্দ্রজিৎ দেবনাথ, শংকর দেবনাথ ও গোবিন্দ দেবনাথ নামে তিনজনের বিরুদ্ধে নবদ্বীপ থানায় এফআইআর করেন পরিবারের লোকেরা।

এদিকে এই ঘটনায় যথারীতি লেগেছে রাজনীতির রং। বিজেপির অভিযোগ, জয় শ্রীরাম’ এবং ‘নরেন্দ্র মোদি জিন্দাবাদ’ বলায় তৃণমূল কর্মীরা খুন করেছে কৃষ্ণ দেবনাথ। গত  শনিবার মৃতদেহ নিয়ে নবদ্বীপ রোডে পথ অবরোধও করেন গেরুয়া শিবিরের কর্মীরা। ঘটনার পর মৃতের বাড়িতেও গিয়েছিলেন বিজেপি প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।

[আরও পড়ুন: রাস্তায় বৃষ্টি উপভোগ গজরাজের! যাত্রী নিয়ে দীর্ঘক্ষণ আটকে রইল বাস]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং