BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

স্কুলের সবজি বাগান তছনছের অভিযোগ জয়ী নির্দল প্রার্থীর বিরদ্ধে, সরগরম মালবাজার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 22, 2018 9:08 pm|    Updated: May 22, 2018 9:08 pm

Malbazar: School allegedly vandalized through political clash

অরূপ বসাক, মালবাজার: বিজয়ী নির্দল প্রার্থীর অনুগামীদের বিরুদ্ধে স্কুলের সবজি বাগান তছনছের অভিযোগ। অভিযোগ করেছেন এলাকার হেরে যাওয়া নির্দল প্রার্থী। অভিযুক্ত প্রার্থীর নাম বাবু প্রধান। তিনি এবার পঞ্চায়েত ভোটে মালবাজারের সংশ্লিষ্ট এলাকা থেকে নির্বাচিত হয়েছেন। হেরেছেন তাঁর বিপরীতে দাঁড়ানো নির্দল প্রার্থী দীপক শর্মা। ঘটনাস্থল মালবাজার মহকুমার ওদলাবাড়ির চুইয়া বস্তি এলাকা। এখানেই রয়েছে ভানু বিদ্যাপীঠ প্রাইমারি। এটি একটি নেপালি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এই স্কুলেরই সেক্রেটারি হলেন দীপক শর্মা। তাঁর অভিযোগ, বাবু প্রধান জিতে যাওয়ায়, তাঁর অনুগামীরা স্কুল চত্বরে হামলা চালিয়েছে। হামলা করে স্কুলের সবজি বাগান, বাগানের বেড়া সব নষ্ট করে দিয়েছে। তবে এহেন অভিযোগ মানতে চাননি এলাকার জয়ী নির্দল প্রার্থী বাবু প্রধান। তাঁর দাবি, জিততে না পেরে হিংসার বশে এসব বলছেন দীপকবাবু। তাছাড়া স্কুলটিকে কুক্ষীগত করে রেখেছেন দীপক শর্মা। স্কুলের বাগানে সবজি চাষ করে তা নাকি বাড়িতেই নিয়ে যান তিনি। এতেই এলাকবাসীর ক্ষোভ। যদি ভাঙচুর কিছু ঘটে থাকে তাহলে তা এই ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ।

[প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে কিশোরীকে ‘অপহরণ’, পাশে দাঁড়িয়ে গ্রেপ্তার প্রতিবেশী]

দীপক শর্মার অভিযোগ, ‘ভোটে জিতে বিজয় মিছিল বের করেন বাবু প্রধান। তাঁর অনুগামীরা সেই মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় স্কুল চত্বরে হামলা চালায়। সবজি বাগান তছনছ করে। বেগুন, লঙ্কা, ঢ্যাঁরশ, কুমড়া, পেপে সব গাছ তুলে ফেলে দেয়। বাগানটি বাঁশ দিয়ে ঘিরে দেওয়া হয়েছিল। সব ভেঙে দেয় ওই নির্দল সমর্থকেরা। দীপকবাবু বলেন এই সবজি দিয়েই স্কুলের মিড ডে মিল চলত। তাছাড়া স্কুলের ভেতর অনেক মুল্যবান গাছ ছিল, হামলায় সব নষ্ট করে দিয়েছে। এব্যাপারে মালবাজার বিডিওকে সব জানিয়েছি আমরা।’

যদিও রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বীর অভিযোগ মানতে চাননি বাবু প্রধান। পালটা দাবি, ভোটে হেরে যাওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যে প্রচারে নেমেছেন দীপক শর্মা। সেক্রেটারি হয়ে স্কুলটিকে নিজের সম্পত্তি মনে করে সবজি বাগান করেছেন। সেই সবজি নিজে বাড়িতে নিয়ে যান। তাছাড়া ওই স্কুল চত্বরে কোনও গরু ছাগল ঢুকলে হাজার টাকা জরিমানা করেন। জরিমানার টাকা আবার পকেটেই ভরেন। গ্রামের মানুষ ক্ষোভের বশেই ভাঙচুর করেছে। এদিকে অভিযোগ পালটা অভিযোগ শুনে বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন মালবাজারের বিডিও ভূষণ শেরপা।

[প্রধানমন্ত্রীর সময় নেই, বিশ্বভারতীর ঐতিহ্যমণ্ডিত সমাবর্তন থেকে বাদ গেল দেশিকোত্তম]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে