BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

শ্বশুরের সঙ্গে মায়ের প্রেম! লজ্জায় আত্মঘাতী তরুণী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 24, 2018 5:27 pm|    Updated: July 24, 2018 5:47 pm

Malda: Girl stumbles on mother’s affair, ends life

ছবি: প্রতীকী

বাবুল হক, মালদহ: শ্বশুরের সঙ্গে মায়ের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের কথা ফাঁস হওয়ায় পাড়ায় মুখে মুখে চর্চাও চলছিল বেশ কিছু দিন৷ গঞ্জনা শুনতে হচ্ছিল স্বামী ও শাশুড়ির কাছে৷ সেই সঙ্গে চলছিল শারীরিক নিগ্রহও৷ শেষ পর্যন্ত গঞ্জনা সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন মাত্র ২০ বছরের মেয়ে সান্তারা বিবি৷ মঙ্গলবার সকালে গ্রামে ঢোকার মুখে একটি আমবাগানে তাঁর ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয়রা৷ ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তের পর সেই মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায় পুলিশ৷ ঘটনাটি ঘটেছে ওল্ড মালদহ থানার মহিষবাথানী গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বদনপুর গ্রামে৷

[চিকিৎসার গাফিলতিতে রোগীমৃত্যুর অভিযোগ, উত্তরবঙ্গে দুই হাসপাতালে ভাঙচুর]

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম সান্তারা বিবি (২০)৷ বাড়ি বদনপুর গ্রামে৷ বাবা সাজিরুল শেখ তিন বছরের চুক্তিতে বর্তমানে সৌদি আরবে শ্রমিকের কাজে কর্মরত৷ বছর তিনেক আগে সান্তারার বিয়ে হয় মালদহের পুখুরিয়া থানার সাতমারা গ্রামে। স্বামী সাহিন শেখ পেশায় দিনমজুর। সাহিন ও সান্তারার দেড় বছরের একটি ছেলেও রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, সান্তারার বাবা বিদেশে থাকায় মা এনারা বিবি বাড়িতে একাই থাকতেন। সেই সুযোগ পেয়ে সান্তারা বিবির শ্বশুর তফিজুল শেখ মাঝেমধ্যেই ছেলের শ্বশুরবাড়ি চলে যেতেন। এভাবেই তফিজুলের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে ওঠে সান্তারার মা এনারা বিবির। তাঁরা দু’জনে নাকি একবার পালিয়ে বিয়েও করে ফেলেন বলে বাসিন্দারা জানিয়েছেন। সেই বিয়ে নিয়ে বদনপুর গ্রামে একাধিকবার সালিশি সভাও বসেছিল। তারপরও তাঁদের সম্পর্ক বন্ধ হয়নি বলে অভিযোগ। এনিয়ে সান্তারাকে তাঁর শাশুড়ি মর্জিনা বিবি ও স্বামী সাহিন শেখের প্রত্যহ গঞ্জনা সহ্য করতে হত। মাঝেমধ্যে চলত মারধরও। অভিযোগ, সোমবার সান্তারার উপর সেই অত্যাচার চরমে ওঠে। দেড় বছরের ছেলেকে কেড়ে নিয়ে সান্তারাকে তাঁর স্বামী ও শাশুড়ি বাড়ি থেকে বের করে দেয় বলে অভিযোগ৷

[পড়াতে এসে মা-মেয়েকে লাগাতার ধর্ষণ, গ্রেপ্তার গৃহশিক্ষক]

শ্বশুরবাড়ি পুখুরিয়ার সাতমারা থেকে বিতাড়িত হয়ে বাবার বাড়ি মদনপুরের দিকে রওনা দেন সান্তারা। এরপর এদিন সকালে বদনপুর গ্রামে ঢোকার মুখে একটি আমবাগানে তাঁর ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান গ্রামবাসীরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে ওল্ড মালদহ থানার পুলিশ। পরে দুপুরে ওল্ড মালদহ ব্লকের বিডিও নরোত্তম বিশ্বাসের উপস্থিতিতে সান্তারার দেহের ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্ত করা হয়৷

এরপরই মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠায় পুলিশ। মৃতার দাদু দুলাল শেখ এই ঘটনায় সান্তারার মা এনারা বিবি, শ্বশুর তাফিজুল শেখ, শাশুড়ি মর্জিনা বিবি ও স্বামী সাহিন শেখের বিরুদ্ধে ওল্ড মালদহ থানার পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযুক্তরা পলাতক বলে পুলিশ জানিয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে৷  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে