BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সাঁতরাগাছি দুর্ঘটনায় রেলকে দুষলেন মুখ্যমন্ত্রী, ক্ষতিপূরণ ঘোষণা

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 23, 2018 9:22 pm|    Updated: October 23, 2018 9:22 pm

Mamata announces Ex-gratia in Santragachi accident

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রেলমন্ত্রককে কাজ করার দরুন রেলের প্রতি সহানুভূতি আছে। কিন্তু সাম্প্রতিক দুর্ঘটনাগুলির দায় কোনওভাবেই এড়াতে পারে না রেল। বিস্ফোরক অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। রেলের প্রতি পূর্ণ সহানুভূতি জানিয়েও মুখ্যমন্ত্রী বললেন, রেলের আরও দায়িত্ববান হওয়া উচিত ছিল।

[একসঙ্গে একাধিক ট্রেনের ঘোষণা, সাঁতরাগাছি স্টেশনে পদপিষ্ট হয়ে মৃত ২ জন]

মঙ্গলবার সন্ধেয় রেড রোডে পুজো কার্নিভাল চলাকালীন সাঁতরাগাছি স্টেশনে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে যায়। মঙ্গলবার সন্ধ্যে ছয়টা নাগাদ ২টি দুরপাল্লার ট্রেন একসঙ্গে ঢুকে পড়ে স্টেশনে। একই সঙ্গে ঘোষণা করা হয় দুটি ট্রেন আসার কথা। তার জেরেই দুর্ঘটনা ঘটে ২ ও ৩ নম্বর প্ল্যাটফর্মের সংযোগকারী ফুটব্রিজে। দুটি ট্রেনের যাত্রীরাই ফুটব্রিজ দিয়ে অন্য প্ল্যাটফর্মে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন। আর তাতেই বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয়। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে বেশ অনেকেই ফুটব্রিজে পড়ে যান। বাকিরা তাঁদের উপর দিয়ে চলে যান। রেহাই পায়নি শিশুরাও। দুর্ঘটনায় আহত ২ জন শিশু-সহ ১৪ জন। এই ঘটনার জন্য কেউ কেউ রেলের তড়িঘড়ি ঘোষণাকে দায়ী করছিলেন, মুখ্যমন্ত্রীর মুখেও শোনা গেল সেই তত্ত্ব।

[রেলের ওয়েবসাইট হ্যাক করে ই-টিকিট জালিয়াতি, গ্রেপ্তার দুই ট্রাভেল এজেন্ট]

সাঁতরাগাটি স্টেশনে যখন দুর্ঘটনা ঘটে, তখন রেড রোডে কার্নিভালেই ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত ছুটে যান ঘটনাস্থলে। পরিদর্শনের পর মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমি দীর্ঘদিন রেল মন্ত্রককে কাজ করার ফলে রেলকে নিজের পরিবারের মতোই মনে করি। আমি জানি রেলের অনেক সুক্ষ্ম কারিগরী সমস্যা আছে। তা সত্ত্বেও বলতে কোথাও একটা গাফিলতি ছিলই। রেলের আরও সতর্ক হওয়া উচিত।’ মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ,  ‘সম্প্রতি রেলে একাধিক দুর্ঘটনা  ঘটেছে। অমৃতসরের ঘটনার দায় সবাই ঝেড়ে ফেলতে চাইছে। এরাজ্যে চারজন বিজেপি কর্মী রেল অবরোধ করলে ট্রেন দাঁড়িয়ে যায় অথচ অত মানুষ দেখেও ট্রেন দাঁড়ায় না। কোথাও একটা রেলের নিজেদের মধ্যে সমন্বয়ের ঘাটতি আছে। দ্রুত এই সমস্যা মেটানো উচিত।’এদিন পরিস্থিতি পরিদর্শনের পর দুই মৃত ব্যক্তির পরিবার পিছু ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। গুরুতর আহতদের পরিবারপিছু ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে ১ লক্ষ টাকা করে। যাঁরা আহত হয়েছেন তাদের প্রত্যেককেই চিকিৎসার জন্য সহায়তা করবে রাজ্য সরকার। যেহেতু আইনশৃঙ্খলা রাজ্যের ব্যাপার, তাই রাজ্য সরকারের তরফেও সরকারিভাবে পুরো ঘটনার তদন্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। পরে আহতদের দেখতে হাসপাতালেও যান তিনি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে