BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

৩৪ লোকসভা আসন ধরে রাখল তৃণমূল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 21, 2016 1:31 pm|    Updated: May 21, 2016 2:49 pm

An Images

অনির্বাণ বিশ্বাস: রাজ্যে ছয় শতাংশ ভোট বাড়িয়ে ৩৪টি লোকসভা আসন ধরে রাখল তৃণমূল কংগ্রেস৷ বালুরঘাটের আসনটি হাতছাড়া হলেও আসানসোলের চার আসন ছিনিয়ে নিয়েছে তৃণমূল৷ জোট করে লোকসভার নিরিখে লাভের ফসল তুলল জোটও৷ কিন্তু লোকসভার ২৪ আসনের সম্ভাবনা কমে তিনটিতে জয় পেয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হল বিজেপিকে৷ পরিসংখ্যানবিদরা জানাচ্ছেন, সাতটি বিধানসভা আসন নিয়ে গঠিত লোকসভাভিত্তিক ফলের নিরিখে একমাত্র নিশ্চিন্তে রয়েছে তৃণমূলই৷

মাত্র দু’বছরের ব্যবধান৷ তাতেই ছয় শতাংশের বেশি ভোট বেড়েছে তৃণমূলের৷ রাজনৈতিক মহল বলছে, শুধু উন্নয়নের জোরেই রাজ্যে এই ছয় শতাংশ ভোট বাড়াতে সক্ষম হয়েছে তৃণমূল৷ মমতা বন্দ্যেপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ব্যক্তি আক্রমণ থেকে তৃণমূলকে কোণঠাসা করার চেষ্টা করেও জনপ্রিয়তার এই বৃদ্ধি ঠেকাতে পারেনি জোট৷ ১৪ সালের ৩৪ লোকসভার নিরিখে ২১৪টি বিধানসভা আসনে এগিয়েছিল তৃণমূল৷ কিন্তু এবারের বিধানসভা নির্বাচনে ২১১ আসন জয়েও অক্ষত সবকটি আসন৷ একই সঙ্গে আগামী তিনবছরে এই ভোট শেয়ার আরও বাড়িয়ে আরও বেশি সংখ্যক লোকসভা আসন নিজেদের দিকে টানতে চাইছে তৃণমূল৷

অন্যদিকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে দুই চিরশত্রু সিপিএম-কংগ্রেস হাত মিলিয়ে বিধানসভা ভিত্তিক কোনও লাভ না হলেও লোকসভার নিরিখে ফল কিছুটা স্বস্তিতে রেখেছে দুই জোটসঙ্গীকে৷ পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত লোকসভা নির্বাচনে সিপিএম, কংগ্রেস আলাদাভাবে লড়ে ৫৬টি বিধানসভা আসনে এগিয়েছিল৷ বামেরা ভোট পেয়েছিল ২৯.৭১ শতাংশ৷ ৯.৫৮ শতাংশ ভোট জুটেছিল কংগ্রেসের ভাগ্যে৷ কিন্তু মমতা বিরোধিতায় আসন সমঝোতা করে বামেদের ফল খারাপ হলেও জোটের আসন বেড়ে ৫৬ থেকে হয়েছে ৭৭টি৷ যদিও মমতা ঝড়ের সামনে কংগ্রেসের ভোট শেয়ার ২.৭২ শতাংশ বাড়লেও বামেদের ২৯.৭১ শতাংশ থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ২৫.৭ শতাংশে৷ প্রসঙ্গত, গত লোকসভা নির্বাচনে মালদহ ও মুর্শিদাবাদ মিলিয়ে কংগ্রেস চারটি লোকসভা আসন ধরে রাখতে পেরেছিল৷ বামেদের কপালে ছিল রায়গঞ্জ ও মুর্শিদাবাদের একটি আসন৷ কিন্ত রায়গঞ্জ. লোকসভার তিনটি বিধানসভা আসন জিতে বামেদের ভোটেও থাবা বসিয়েছে তৃণমূল৷ মুর্শিদাবাদেও তিনটি আসন দখল করছে তৃণমূল৷ ফলে জোটের স্বস্তিও উধাও হয়ে যেতে পারে আগামী লোকসভায় বলে অনুমান পরিসংখ্যানবিদদের৷

এই পরিসংখ্যানে সব চেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বিজেপি৷ অন্তত তেমনটাই বলছে পরিসংখ্যান৷ তাঁদের মতে গত লোকসভা নির্বাচনে ১৬.৮০ শতাংশ ভোট নিয়ে নিয়ে রাজ্যের ২৪টি বিধানসভা আসনে এগিয়েছিল বিজেপি৷ কিন্তু ভোটের ফল প্রকাশ হতেই দেখা যাচ্ছে আসানসোলে বিজেপির গড়েও বিধানসভা আসন হারিয়ে সেই সংখ্যা এসে দাঁড়িয়েছে মাত্র তিনে৷ এমনকী, গত উপনির্বাচনে বসিরহাটে প্রথম খাতা খোলা বিজেপির বিধায়ক শমীক ভট্টাচার্য আসনটিও তৃণমূলের দখলে গিয়েছে৷ আরও চিন্তা বাড়িয়েছে আসানসোলের চার বিধানসভা আসন তৃণমূলে চলে যাওয়ায়৷ গোর্খা জনমুক্তি মোর্চাকে শরিক করে বিজেপি ভোট শেয়ার ১৬.৮০ থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ১০.৭০ শতাংশে৷ যদিও উত্তরবঙ্গের সামগ্রিক ফলের পাশাপাশি পাহাড়েও ভোট বাড়িয়ে নিয়েছে তৃণমূল৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement