BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বেলেঘাটা থেকে বেলুড়, অবাধে ভ্রমণ করোনা আক্রান্তের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: May 4, 2020 11:55 am|    Updated: May 4, 2020 11:55 am

An Images

ফাইল ফটো

সুব্রত বিশ্বাস: গোটা বিশ্বে ত্রাস সৃষ্টি করেছে করোনা ভাইরাস। মারণ জীবাণুর হামলা রুখতে ভারতে চলছে লকডাউনের তৃতীয় পর্ব। কোনও দাওয়াই না থাকায় রোগ মোকাবিলায় ভরসা ‘আইসোলেশন’ ও ‘সোশ্যাল ডিস্টেন্সিং’। এহেন পরিস্থিতিতে বেলেঘাটা থেকে বেলুড় অবাধে ঘুরে বেড়ালেন এক করোনা আক্রান্ত।

[আরও পড়ুন: করোনা LIVE UPDATE: শুরু লকডাউনের তৃতীয় দফা, দেশে ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসের বলি ৭২]

জানা গিয়েছে, কয়েকদিন আগে বেলেঘাটার বাসিন্দা এক ষাটোর্দ্ধ ব্যক্তির শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। তারপর ওই ব্যক্তির লালারস সংগ্রহ করে তাঁকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেন চিকিৎসকরা। কিন্তু বিধিনিষেধের তোয়াক্কা না করে শুক্রবার রিপোর্ট আসার আগেই বেলুড়ে চলে যান তিনি। সেখানে আক্রান্তের আরও একটি বাড়ি রয়েছে। শনিবার ওই ব্যক্তির রিপোর্ট করোনা পজিটিভ আসায় বেলেঘাটার বাড়িতে সন্ধান চালায় পুলিশের একটি দল। তাঁরা জানতে পারে, বেলুড়ের প্রান্তিক এলাকায় নিজের বাড়ি চলে গিয়েছেন আক্রান্ত ব্যক্তি। এরপর কলকাতা পুলিশের একটি দল প্রান্তিক এলাকা থেকে তাঁকে শনিবার রাতেই নিয়ে এসে হাসপাতালে ভরতি করে। এদিকে, আক্রান্তের সংস্পর্শে আসায় বেলুড়ের বাড়ির এগারো সদস্যকে কোয়ারেন্টইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয় সেদিন রাতেই। বেলেঘাটার বাড়ির সদস্যদেরও কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।  

উল্লেখ্য, বালি জগাছা আগেই কন্টেনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষিত হয়েছে। ঘোড়পাড়া, চাঁদমারি খাটাল এরপর প্রান্তিকে করোনা আক্রান্তের ঘটনা ঘটায় উদ্বিগ্ন প্রশাসন। আতঙ্ক ছড়িয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যেও। এহেন পরিস্থিতিতে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির অবাধ যাতায়াত আরও চিন্তা বাড়িয়েছে। কীভাবে আক্রান্ত ব্যক্তি লকডাউনের মধ্যে বেলেঘাটা থেকে বেলুড় আসতে সক্ষম হলেন? তবে কি, ঠিকমতো নজরদারি চালানো হচ্ছে না? উঠছে এমনই একাধিক প্রশ্ন। এদিকে, রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫০ পেরিয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৫০ জনের। প্রতিদিনই বাড়ছে সংক্রমণের ঘটনা। সব মিলিয়ে রাজ্যে দ্রুত জাল ছড়াচ্ছে কোভিড-১৯।     

[আরও পড়ুন: ‘ভিনরাজ্যে থাকা মানেই শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনের সুবিধা নয়’, নয়া নির্দেশিকা কেন্দ্রের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement