১৩ মাঘ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

‘তৃণমূলকে হারাতে সকলের একসঙ্গে আসা উচিত’, এবার ‘রাম-বাম’ জোটের পক্ষে সওয়াল মিঠুনের

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 26, 2022 5:11 pm|    Updated: November 26, 2022 6:22 pm

Mithun Chakrabarty urges CPM Congress to join hand with BJP to defeat TMC | Sangbad Pratidin

শেখর চন্দ্র, আসানসোল: ফের প্রকাশ্যে রাজ্যে রাম-বাম জোট। এবার বিজেপির তারকা প্রচারক মিঠুন চক্রবর্তীর (Mithun Chakrabarty) গলাতেও রাম-বাম জোটের কথা। তৃণমূলকে হারাতে বেসরকারিভাবে বিজেপির সঙ্গে হাত মেলাতে পারে বাম-কংগ্রেস। শনিবার আসানসোলের সাংবাদিক বৈঠকে এমনই দাবি করলেন বলিউড সুপারস্টার মিঠুন চক্রবর্তী। পালটা তৃণমূলের দাবি, বিজেপি মেনে নিল একা লড়ার ক্ষমতা নেই ওঁদের। তাই বামেদের সমর্থন চাইল ওরা।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে বিজেপির হয়ে জেলায়-জেলায় সভা করছেন মিঠুন। এদিন সকালে আসানসোলে পৌঁছে বিজেপির (BJP) রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারকে পাশে নিয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেন তিনি। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, “সিপিএমকে হারাতে সব বিরোধী দল তৃণমূলকে সাহায্য করেছিল। বিজেপির তখন ক্ষমতা সামান্য ছিল। তবু তারা সাহায্য করেছিল। এবার তৃণমূলের মতো একটা ফোর্সকে হারাতে সকলের একজোট হওয়া উচিত। ওদের সঙ্গে আমাদের মতাদর্শে পার্থক্য রয়েছে। সেটা থাক। কিন্তু তৃণমূলকে হারাতে একজোট হওয়া দরকার।” তবে সঙ্গে সঙ্গে তিনি এটাও বলেন, “এটা নিয়ে এভাবে প্রকাশ্যে তো কিছু বলতে পারি না।” তবে তাঁর এহেন মন্তব্যে রাম-বাম জোট তত্ত্বকে আরও মজবুত করল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

[আরও পড়ুন: সৌজন্য অতীত! ‘মমতাকে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী করবই’, চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর]

 

এ প্রসঙ্গে বলে রাখা দরকার, তৃণমূল অভিযোগ করে, গত লোকসভা-বিধানসভা ভোটে বিজেপির হাত শক্ত করতে নিচুতলায় জোট করেছিল বামেরা। বহু জায়গায় বামের ভোট রামে গিয়েছে। এই আঁতাতে শামিল হয়েছে কংগ্রেসও। এবার একাধিক সমবায়েও রাম-বাম আঁতাত হয়েছে। এবার পঞ্চায়েত ভোটের আগে ফের সেই জোটের কথা শোনা গেল মিঠুনের গলাতে। যাঁর উপর দলীয় সংগঠন চাঙ্গা করার দায়িত্ব বর্তেছে বিজেপি। এ প্রসঙ্গে রামনগরের সভা শেষে তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক তথা মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, “এটা আজ মিঠুন চক্রবর্তী বললেন মানে বিজেপির একা লড়ার ক্ষমতা নেই। তাই বামেদের সঙ্গে জোট করার কথা বললেন।”

এদিন সাংবাদিক সম্মেলন থেকে মিঠুন চক্রবর্তী আরও বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার রাজনৈতিক গুরু। আমি ওঁর অনুগামী। ওঁকে আমি মারাত্মক সম্মান করি। উনি যা যা করেছেন, আমিও তাই তাই করি দেখুন।” এরপরই তৃণমল সুপ্রিমোর একের পর এক দলের সঙ্গে জোট নিয়ে কটাক্ষ করেন বিজেপি নেতা।

[আরও পড়ুন: শান্তিকুঞ্জে ‘চায়ে পে চর্চা’? শুভেন্দুর বাড়িতে চায়ের আমন্ত্রণ অভিষেকের]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে