১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাজনৈতিক বচসায় আটক বিজেপি কর্মীরা, প্রতিবাদে রাতভর গাইঘাটা থানার সামনে অবস্থান ২ সাংসদের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 7, 2020 9:58 am|    Updated: June 7, 2020 1:16 pm

MP Shantanu Thakur and Soumitra Khan sit for protest infront of Gaighata PS

জ্যোতি চক্রবর্তী, বনগাঁ: মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে বিজেপি কর্মীদের থানায় আটক করে রেখেছে পুলিশ, এই অভিযোগ তুলে উত্তর ২৪ পরগনার গাইঘাটা থানার সামনে রাতভর অবস্থান বিক্ষোভ দেখালেন দুই বিজেপি সাংসদ। বনগাঁর সাংসদ শান্তনু ঠাকুর ও বিষ্ণুপুরের সাংসদ তথা বিজেপির যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি সৌমিত্র খাঁ, দু’জনই শনিবার রাত সাড়ে ১২টা থেকে থানার সামনে অবস্থানে বসে পড়েন। রবিবার বেলায় পুলিশের আশ্বাস পেয়ে প্রায় ১২ ঘণ্টা পর অবস্থান তুলে নেন তাঁরা।

বিজেপির অভিযোগ, শনিবার সন্ধ্যায় বকচড়া পারোইপাড়া এলাকায় একটি একটি রাজনৈতিক বিবাদের ঘটনা ঘটে। সেখানে বিজেপির তরফে অপর্ণা মণ্ডল মধ্যস্থতার জন্য যান। অভিযোগ, সেখানেই পুলিশ অপর্ণা মণ্ডল-সহ তিনজনের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা সাজিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়। আরও অভিযোগ, কোনও মহিলা পুলিশ ছাড়াই গ্রেপ্তার করা হয়ে বিজেপি সদস্য অপর্ণা মণ্ডলকে। পরে দুই সাংসদকে নিয়ে বিজেপি কর্মী, সদস্যরা গাইঘাটা থানা ঘেরাও করলে অপর্ণা মণ্ডলকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে বাকি দু’জনকে ছাড়া হয়নি। আর তাঁদের ছেড়ে দেওয়ার দাবিতেই রাতভর থানার সামনে অবস্থান করলেন শান্তনু ঠাকুর ও সৌমিত্র খাঁ।

[আরও পড়ুন: সবুজ সংকেত দিল রাজ্য, দিন দুয়েকের মধ্যেই পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে শুরু হবে বাণিজ্য]

এদিকে, পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে গাইঘাটা বকচড়ায় তৃণমূল কর্মীদের সঙ্গে স্থানীয় বিজেপি কর্মীদের বাকবিতণ্ডার ঘটনা ঘটে। তা মেটানোর দাবিতে পরবর্তীতে গাইঘাটা বকচড়া ফুলসারা গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি সদস্য অপর্ণা মণ্ডল, তাঁর স্বামী উজ্জ্বল মণ্ডল ও গাড়ি চালক সুজয় দাস রাতে গাইঘাটা থানার গিয়ে পুলিশের সঙ্গে অভব্য আচরণ করে বলে অভিযোগ। কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীদের সঙ্গে অসভ্য আচরণ করার জন্য গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি সদস্য-সহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে। পরে অপর্ণাদেবীকে ছেড়ে দেওয়া হলেও, বাকিদের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ রয়েছে বলে দাবি গাইঘাটা থানার পুলিশের। যদিও বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ প্রশ্ন তুলেছেন, একই অভিযোগে তিনজনকে আটক করা হলে, বাকিদের ছেড়ে দিতে আইনি বাধা কোথায়?

[আরও পড়ুন: কলকাতা মেডিক্যালের পর COVID হাসপাতাল হতে চলেছে সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজ]

রবিবার সকালেও অব্য়াহত সেই বিক্ষোভ। এলাকার বিধায়ক বিশ্বজিৎ ঘোষ, দলের নেতা দুলাল বর-সহ ৭ জনের প্রতিনিধি দল গাইঘাটা থানায় যান। থানার বাইরে যেখানে অবস্থান চলছিল, সেখানে তাঁরা পৌঁছতেই পুলিশ কার্যত তাড়িয়ে দেওয়ার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয় বলে অভিযোগ বিজেপির প্রতিনিধি দলের। পরে থানায় ভিতরে তাঁরা আলোচনায় বসেন। প্রায় ১২ ঘণ্টা পর পুলিশের আশ্বাসে অবস্থান তুলে নেওয়া হয়। আটক বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে জামিনযোগ্য ধারায় মামলা রুজুর কথা জানিয়েছে পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে