BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ৯ RPF জওয়ান, রেলের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত গাফিলতির অভিযোগ

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: April 24, 2020 12:48 pm|    Updated: April 24, 2020 12:52 pm

An Images

সুব্রত বিশ্বাস: করোনা আবহে সন্ত্রস্ত গোটা দেশ। মারণ রোগের প্রকোপ থামাতে চলছে টানা লকডাউন। এহেন পরিস্থিতিতে রেলের চূড়ান্ত গাফিলতিতে রাজ্যে ছড়াল করোনা আতঙ্ক। জানা গিয়েছে, সম্প্রতি দিল্লি থেকে হাওড়ায় ফিরে আসা ৯ জন রেল সুরক্ষা বাহিনীর (RPF) জওয়ানের শরীরে মিলল কোভিড-১৯ জীবাণু। 

[আরও পড়ুন: প্রকাশ্যে রাস্তায় কাশির জের, যুবককে পিটিয়ে মারল জনতা]

জানা গিয়েছে, দেশজুড়ে লকডাউন শুরু হওয়ার আগে পশ্চিমবঙ্গ থেকে দিল্লি গিয়েছিল ২৮ জন RPF জওয়ানের একটি দল। রেলের সুরক্ষা সংক্রান্ত সরঞ্জাম নিয়ে ফিরে আসার কথা ছিল তাঁদের। তবে লকডাউনের জেরে গণপরিবহণ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় গত ১৪ এপ্রিল রেলের পার্সেল ভ্যানে করেই দিল্লি থেকে হাওড়া এসে পৌঁছান তাঁরা। তারপরই তাঁদের করোনা উপসর্গ লক্ষ্য করা যায়। বেগতিক দেখে ওই জওয়ানদের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। পাশাপাশি, তাঁদের লালারসের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। রিপোর্ট এলে দেখা যায় ৯ জন জওয়ানের শরীরে ঢুকছে করোনা ভাইরাস। এরমধ্যে রয়েছে খড়গপুর টিভি হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে থাকা ৬ জওয়ান। তারপরই নড়েচড়ে বসে রেল প্রশাসন। ওই জওয়ানদের মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এদিকে, রেল কর্মীদের একাংশের অভিযোগ, কেন্দ্রের বেঁধে দেওয়া বিধিনিষেধকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে কর্মীদের একসঙ্গে কাজ করতে বাধ্য করা হচ্ছে। ফলে সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়ছে।   

এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে কোনও মন্তব্য করেননি দক্ষিণ-পূর্ব রেলের RPF-এর আইজি।দক্ষিণ-পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক সঞ্জয় ঘোষ বলেন, “রেলের সুরক্ষা সংক্রান্ত সরঞ্জাম আনতে লকডাউনের আগেই ওই জওয়ানরা দিল্লি গিয়েছিলেন। তবে সম্পূর্ণ নিয়ম মেনে এবং যথাযত সুরক্ষা নিয়েই তাঁরা পার্সেল ভ্যানে ফেরত আসেন। ফেরার পরই তাঁদের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। টেস্টে ৯ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। কয়েকজনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। বাকিদের পরীক্ষার রিপোর্ট এখনও পাওয়া যায়নি। আক্রান্তদের রাজ্য সরকারের হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। ”                    

এদিকে, RPF জওয়ানদের শরীরে করোনা ভাইরাস মেলায় প্রবল আতঙ্ক ছড়িয়েছে রেলের কর্মীদের মধ্যে। পার্সেল ভ্যানে সরঞ্জাম নিয়ে আসার পর যাঁরা মাল খালাস করেছেন বা জওয়ানদের সংস্পর্শে এসেছন, প্রবল দুশ্চিন্তায় ভুগছেন সেই সমস্ত পার্সেল কর্মীরা। অনেকেই প্রশ্ন করছেন, এই গরমে বন্ধ পার্সেল ভ্যানে কি করে এলেন জওয়ানরা? গার্ডের কামরায় ২৮ জন জওয়ানের জায়গা হওয়ার কথা নয়। তবে কি, তাঁরা ভ্যান সংলগ্ন যাত্রীবাহী কামরায় চেপেছিলেন? যদি তা হয়ে থাকে, তবে বহু মানুষের সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল বৃদ্ধি পেয়েছে।      

[আরও পড়ুন: রাজ্যের প্রাপ্য মেটাচ্ছে দিল্লি, বাংলার ভাঁড়ারে আসছে ৩৪৬১ কোটি টাকা]                 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement