১৬ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শনিবার ৩০ মে ২০২০ 

Advertisement

‘বাংলায় NRC হবেই’, সংকল্প যাত্রা থেকে হুঁশিয়ারি কৈলাসের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: October 20, 2019 1:17 pm|    Updated: October 20, 2019 1:58 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ব্যুরো: করিমপুর বিধানসভার উপনির্বাচনের দিনক্ষণ এখনও ঘোষণা হয়নি। কিন্তু গান্ধী সংকল্প যাত্রাকে সামনে রেখে শনিবার করিমপুরে উপনির্বাচনের প্রচার শুরু করে দিল বিজেপি। মহিষবাথান বাজার এলাকায় এক জনসভায় এনআরসি ইস্যু তুলে ধরলেন বিজেপি নেতারা। বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলে এনআরসি যে হবেই, তা ফের সাফ জানিয়ে দিলেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। একইসঙ্গে তিনি আশ্বাস দিলেন, এনআরসি হলে হিন্দুদের আশঙ্কার কোনও কারণ নেই। একজন হিন্দুকেও দেশের বাইরে যেতে হবে না।

পুজোর ঠিক আগে রাজ্যে এসে এনআরসি ইস্যুকে তুঙ্গে তুলে দিয়ে গিয়েছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। নেতাজি ইন্ডোরে এক সভায় শাহ বলেছিলেন, বাংলায় এনআরসি হবেই। কোনও অনুপ্রবেশকারীকে থাকতে দেওয়া হবে না। পাশাপাশি কোনও শরণার্থীকে দেশ ছাড়তে হবে না। এজন্য আগে নাগরিকত্ব সংশোধন বিল চালু করা হবে। শাহর সুরেই এদিন এনআরসির পক্ষে সওয়াল করেছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়রা। করিমপুরের সভামঞ্চ থেকে আইনশৃঙ্খলা ইস্যুতে রাজ্যের শাসকদলকেও কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছেন কৈলাস, রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপির সহ পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন। রাজ্যে নৈরাজ্যের সরকার চলছে বলে মন্তব্য করে কৈলাস বলেন, “একের পর এক বিজেপি কর্মী খুন হচ্ছে কিন্তু সরকারের কোনও হেলদোল নেই।” অরবিন্দ মেনন বলেন, “নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে স্বচ্ছ ভারত তৈরির যে ডাক দেওয়া হয়েছে। সেটা আমরা সফল করব।” তাঁর দাবি, গান্ধীজিকে অন্য কোনও দল সেভাবে সম্মান দেয়নি। গান্ধীজিকে সম্মান জানাতেই বিজেপি সংকল্প যাত্রা শুরু করেছে।

এদিন বিজেপির সভায় করিমপুর উপনির্বাচনের প্রসঙ্গও উঠে আসে। দলের জাতীয় কর্মসমিতির সদস্য মুকুল রায় বলেন, সামনে করিমপুরের উপনির্বাচন রয়েছে। ভোটের দিন খুব শীঘ্রই ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন। তিনি আরও বলেন, রেলমন্ত্রী থাকাকালীন তিনি কৃষ্ণনগর-বহরমপুর ভায়া করিমপুর রেলপথ নিয়ে রেল বাজেটে সার্ভে করার জন্য অর্থ বরাদ্দ করেছিলেন। রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে করিমপুর এলাকার মানুষদের নিয়ে এই দাবিকে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে তুলে ধরবেন। এদিনের সভায় ছিলেন বিজেপি নেতা কল্যাণ চৌবে।

[আরও পড়ুন:বাড়িতে ঢুকে ব্যবসায়ীকে গুলি, রেহাই পেলেন না বৃদ্ধ মা-বাবাও]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement