১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাবুল সুপ্রিয়র প্রচারে মোদির মুখোশ পড়ে শামিল ছোটরাও, বিতর্ক তুঙ্গে

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: April 21, 2019 8:50 am|    Updated: April 21, 2019 9:03 am

An Images

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল:  ফের প্রচার  বিতর্কে আসানসোলের বিদায়ী সাংসদ ও বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়। এবার তাঁর প্রচারে বাচ্চাদের মুখে দেখা গেল মোদির মুখোশ। বাবুলের বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল।  যদিও এই ঘটনায় বিতর্কের কিছু দেখছেন না আসানসোলের বিজেপি প্রার্থী।

[আরও পড়ুন: ছিপ হাতে মাছ ধরতে বসলেন অধ্যাপক! প্রচারে চমক অনুপম হাজরার]

প্রচারে বেরিয়ে বারাবনিতে একদল বাচ্চা ছেলের হাতে তৃণমূলের পতাকা দেখে বাবুল সুপ্রিয় কটাক্ষ করেছিলেন। বাচ্চাদের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, তোমাদের পড়াশোনা করার বয়স তোমরা ঝান্ডা ধরো না। তৃণমূল বা বিজেপি কারোরই না। এই ঘটনায় তৃণমূলের শিক্ষাদীক্ষা নিয়েও তিনি প্রশ্ন তুলেছিলেন। শনিবার বারাবনি বিধানভার সালানপুরে বাবুলের প্রচারে বাচ্চাদের মুখে দেখা গেল মোদির মুখোশ। মুখোশ পরিহিত সেই বাচ্চাদের সঙ্গে বাবুল সুপ্রিয় ছবিও তোলেন। তাদের হাতে চকলেটও দেওয়া হয়। এই ঘটনায় বিতর্ক সৃষ্টি হয়। যদিও বাবুল সুপ্রিয়র দাবি, তাঁর প্রচারে যে গ্রামবাসীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে এসেছেন, তাঁদের দু’-একজন কোলে বাচ্চা নিয়ে এসেছিলেন। তাঁদের বাবারাই হয়তো মুখে মুখোশ পড়িয়ে দিয়েছেন। এরমধ্যে বিতর্কের কিছু তিনি দেখছেন না। যদিও তৃণমূলের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে বাবুল সুপ্রিয় নির্বাচনবিধি লঙ্ঘন করেছেন। এরকম করা যায় না।

এবারের লোকসভা ভোটে রাজ্য বিজেপির জন্য একটি থিম সং রেকর্ড করেছিলেন আসানসোলের বিদায়ী সাংসদ ও বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়। সেই গান নিয়ে বিতর্ক কম হয়নি। শেষপর্যন্ত গানটিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়. মিটিং-মিছিলে তো বটেই, সোশ্যাল মিডিয়ায়ও গানটি ব্যবহার করা যাবে না। কিন্তু, কমিশনে নিষেধাজ্ঞাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে বিতর্কিত গান বাজিয়ে প্রচার করছেন বাবুল। এমনকী, বারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংয়ের প্রচারেও বিতর্কিত গানটি বাজানো হয়েছে।

[ আরও পড়ুন: জইশের মতো নিষিদ্ধ হোক বিজেপি, ফিরহাদ হাকিমের মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement