BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শাসক শিবিরে গুরুত্বপূর্ণ পদ, ছত্রধর মাহাতোকে ঘিরে নতুন আশা জঙ্গলমহলে

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 24, 2020 3:38 pm|    Updated: July 24, 2020 3:41 pm

An Images

সুনীপা চক্রবর্তী, ঝাড়গ্রাম: সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে রাজনীতির মূল স্রোতে যোগ দিয়েছেন জঙ্গলমহলের জনপ্রিয় নেতা ছত্রধর মাহাতো (Chhatradhar Mahato)। একসময় পুলিশি সন্ত্রাস বিরোধী জনসাধারণের কমিটির নেতা একেবারে তৃণমূলের রাজ্য কমিটির অন্যতম সম্পাদক। বৃহস্পতিবার দলের সাংগঠনিক বৈঠক থেকে এই ঘোষণা হওয়ার পরই নতুন করে আশায় বুক বাঁধছে শুরু করেছেন লালগড়বাসী। এখানকারই বাসিন্দা ছত্রধর মাহাতো। দায়িত্বের কথা শুনেই পরিকল্পনা ছকে ফেলেছেন তিনি। বলছেন, টিম তৈরি করে কাজে নামবেন।

Chhatradhar-mahato1
২০১৯এ জেলমুক্তির পরে ঘরে ফেরা

বৃহস্পতিবার বিকেলেই ছত্রধর মাহাতোকে তৃণমূলের গুরুত্বপূর্ণ পদে আনার ঘোষণা করেছেন সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। আর শুক্রবার বেলায় তাঁর গ্রামে গিয়ে দেখা গেল, তাঁকে নিয়ে মানুষজনের মধ্যে বেশ উৎসাহ। যেমনটা দেখা গিয়েছিল, ২০১৯এ তিনি সংশোধনাগার থেকে মুক্ত হয়ে গ্রামের বাড়ি ফেরার সময়ে। রীতিমতো জনসমুদ্রে ভেসে গিয়েছিলেন নেতা। নিজের গ্রাম লালগড়ের আমলিয়া গ্রামে উষ্ণ অভ্যর্থনার মধ্য দিয়ে। এখন তাঁর সেই প্রতিবেশীরাই চাইছেন, ছত্রধর বাবু মানুষের পাশে থেকে কাজ করবে। তাঁদের সমস্যার সুরাহা করবেন, তাঁদের দাবিদাওয়া তুলে ধরবেন সকলের সামনে।

[আরও পডুন: বানভাসি উত্তরবঙ্গে ফের বৃষ্টির পূর্বাভাস, ভিজতে পারে দক্ষিণবঙ্গও]

ছত্রধর মাহাতো যে তৃণমূলে যোগ দেবেন, তা খানিকটা আঁচ পাওয়া যাচ্ছিল। বিভিন্ন সময় তাঁকে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করতে দেখা গিয়েছিল। রাজনৈতিক মহলের একাংশের ধারণা, ছত্রধর মাহাতোর যা ইমেজ রয়েছে, তাতে ওই এলাকায় দলীয় গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে অনেকটাই রাশ টানা যাবে। তার সঙ্গে আদিবাসী অধ্যুষিত জেলায় বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে যে বিভাজন দেখা দিয়েছে, সেটা মিটবে বলেও মনে করা হচ্ছে। কারণ, সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে জনসাধারণ কমিটির এই নেতার ভাল প্রভাব রয়েছে। তবে দলের একটা অংশের বক্তব্য, “আগে মাঠে নামুন তার পরেই সব বোঝা যাবে।”

[আরও পডুন: লকডাউনে কাজ হারিয়ে আত্মঘাতী যুবক, ছেলের মৃত্যু সংবাদ শুনে গলায় দড়ি দিলেন বাবা]

একসময় লালগড় আন্দোলনের নেতৃত্ব দেওয়া ছত্রধর মাহাতোর আন্দোলনের সঙ্গী বিরকাড় গ্রামের মনোজ মাহাতো বলছেন, “আমরা চাইব, ছত্রধরদা মানুষের পাশে থেকে কাজ করুন। মানুষের পাশে থাকাটাই আসল।” ছত্রধর বাবুর আরেক আন্দোলন সঙ্গী ছিলেন বর্তমানে বিনপুর ১ নং ব্লক তৃণমূলের সভাপতি শ্যমল মাহাতো। তাঁর কথায়,”দিদি যখন দায়িত্ব দিয়েছেন তখন নিশ্চয় উনি মানুষের জন্য কাজ করবেন। আমরা ওনাকে সংবর্ধনা জানাব।” ছত্রধর মাহাতো নিজে দায়িত্ব পেয়ে বলছেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে মানুষের সেবা করার সুযোগ পেয়েছি। তাই মানুষের পাশে থেকে সবসময় কাজ করতে চাই। প্রথমে একটা টিম তৈরি করে নিয়ে কাজে নামব।” সবমিলিয়ে, ছত্রধর মাহাতোকে সামনে রেখে সুসময়ের আশা করছেন জঙ্গলমহলের মানুষজন।

ছবি: প্রতিম মৈত্র।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement