BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

আমফান দুর্নীতিতে এবার কাঠগড়ায় বিজেপি পরিচালিত পঞ্চায়েত, জনরোষে রণক্ষেত্র গাইঘাটা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 7, 2020 4:44 pm|    Updated: July 7, 2020 8:37 pm

An Images

জ্যোতি চক্রবর্তী, বনগাঁ: আমফান (Amphan)দুর্নীতির অভিযোগে শুধুই যে কাঠগড়ায় তৃণমূল, তা নয়। বিজেপি পরিচালিত পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধেও দেদার দুর্নীতির অভিযোগে এবার জনরোষ আছড়ে পড়ল গেরুয়া শিবিরের উপর।  সোমবার উত্তর ২৪ পরগনার বাগদার বিজেপি পরিচালিত কুনিয়ারা ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের পর আজ গাইঘাটায় বিজেপি পরিচালিত ধর্মপুর ২ গ্রাম পঞ্চায়েতে  হামলা চালালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। পঞ্চায়েত অফিস লক্ষ্য করে চলল ইটবৃষ্টি। পুলিশ ঘটনাস্থলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গেলে জনতার ক্ষোভ আছড়ে পড়ে তাদের উপরও। আহত হন এক মহিলা পুলিশকর্মী।

উত্তর ২৪ পরগনার উপকূলবর্তী এলাকাগুলি আমফানে তছনছ হয়ে গিয়েছে। সরকারি ক্ষতিপূরণের জন্য তালিকা তৈরি নিয়ে গোড়া থেকেই দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে শাসকদলের বিরুদ্ধে। ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া সত্ত্বেও ক্ষতিপূরণের টাকা না পাওয়ায় তৃণমূল পরিচালিত অধিকাংশ পঞ্চায়েত অফিসে চলেছে বিক্ষোভ। সেইমতো ব্যবস্থাও নিয়েছে দল। অভিযোগ পেয়ে শাস্তি হিসেবে শোকজ, সাসপেন্ডের পথে হেঁটেছে। এ নিয়ে রাজনৈতিক চাপানউতোরও কম হয়নি।

[আরও পড়ুন: সংক্রমণ রুখতে কড়া লকডাউনের সিদ্ধান্ত রাজ্যের, জেনে নিন ছাড় মিলবে কোন কোন ক্ষেত্রে]

তবে এবার উলটপুরাণ। আমফান দুর্নীতিতে এবার কাঠগড়ায় বিজেপি পরিচালিত পঞ্চায়েত। গাইঘাটা ধর্মপুর ২ গ্রাম পঞ্চায়েতটি বিজেপির দখলে। কিন্তু সেখানেও নিয়ম মেনে ত্রাণ ও ক্ষতিপূরণের টাকা দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ তুলে আজ পঞ্চায়েত অফিসে প্রতিবাদ দেখান স্থানীয়রা। পঞ্চায়েত অফিসের গেট ভাঙার চেষ্টা চলে, অফিস লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি হয় বলে অভিযোগ। পঞ্চায়েত অফিসে থাকা কয়েকটি মোটরবাইকেও চলে ভাঙচুর। সোমবারও বাগদার কুনিয়ারা গ্রাম পঞ্চায়েতে একই অভিযোগে মহিলারা ঝাঁটা নিয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন।

[আরও পড়ুন: শ্রী হরিচাঁদ ও গুরুচাঁদের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা হচ্ছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব সুব্রত ঠাকুর]

আজ দুপুরে এই ঘটনা ঘিরে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে ধর্মপুর এলাকা। যদিও বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ, স্থানীয় তৃণমূল নেতা, কর্মীরা এই বিক্ষোভ সংগঠিত করেছে। ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে যায় গাইঘাটা থানার পুলিশ। জনতার বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয় তাদেরও। পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে জখম হন এক মহিলা পুলিশকর্মী। দীর্ঘক্ষণ পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এ বিষয়ে পঞ্চায়েতের তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement