BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

আমফান মোকাবিলায় মমতাকে দরাজ সার্টিফিকেট প্রধানমন্ত্রীর

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 22, 2020 10:59 am|    Updated: May 23, 2020 9:07 am

An Images

আমফানে বিপর্যস্ত বাংলার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে রাজ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শুক্রবার সকালে দিল্লি থেকে বাংলায় পৌঁছান তিনি। বসিরহাট কলেজে তৈরি হয়েছে অস্থায়ী হেলিপ্যাড। আকাশপথে উত্তর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনার আমফান বিধ্বস্ত এলাকাও পরিদর্শন করেন। ওই কলেজেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক সারেন। 

বেলা ৩.৩০: শনিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্ষয়ক্ষতি খতিয়ে দেখতে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পরিস্থিতি পরিদর্শনের পর কাকদ্বীপে করবেন বৈঠক।
বেলা ২.১০:
বাংলাকে স্বাভাবিক করতে দ্রুতগতিতে কাজ করছে প্রশাসন। তাছাড়া আমফানের ভয়াবহতা থেকে মানুষকে বাঁচাতে যেভাবে অগ্রিম পরিকল্পনা করেছিল রাজ্য সরকার তাতেও সন্তুষ্ট মোদি। মমতা ও প্রশাসনিক কর্তাদের দরাজ সার্টিফিকেট দেন প্রধানমন্ত্রী।
বেলা ১.২৪:
দীর্ঘ প্রায় একঘণ্টা দশ মিনিটের বৈঠকের পর বসিরহাট কলেজ থেকে বেরিয়ে যান মুখ্যমন্ত্রী-প্রধানমন্ত্রী। বাংলা থেকে সোজা ওড়িশা যাওয়ার কথা তাঁর।
বেলা ১.১০:
আমফান বিধ্বস্ত বাংলার জন্য ১ হাজার কোটি টাকা আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর। এদিন তিনি বলেন, ” ঘূর্ণিঝড়ে বাংলা যেভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তা দেখে আমি ব্যথিত। কেন্দ্র থেকে একটি দল পাঠানো হবে। কৃষি, বিদ্যুৎ পরিষেবা খতিয়ে দেখবে তারা। এই সময় গোটা দেশ বাংলার পাশে আছে। আপাতত এক হাজার কোটি টাকা আর্থিক প্যাকেজ দেওয়া হচ্ছে। যদি দেখা যায় ক্ষতির পরিমাণ আরও বেশি, তাহলে আরও অর্থ দেওয়া হবে।” সেই সঙ্গে নিহতদের পরিবার পিছু দুই লক্ষ টাকা করে দেওয়া হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলিকে ৫০ হাজার টাকা আর্থিক সাহায্য করতে হবে।

Modi-mamata
বেলা ১২.২০:
অন্য একটি হেলিকপ্টারে বসিরহাট পৌঁছেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তিনি প্রশাসনিক বৈঠকে থাকবেন কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

বেলা ১২.১৫:  আমফান বিধ্বস্ত বসিরহাটে পৌঁছে গেলেন মোদি। বসিরহাট কলেজের পিছনের মাঠে তৈরি অস্থায়ী হেলিপ্যাডে নামে তাঁর চপার। মুখ্যমন্ত্রী, রাজ্যপাল এবং মোদি একে একে নেমে আসেন চপার থেকে। কলেজের দোতলাতেই শুরু উচ্চপর্যায়ের বৈঠক। ঘোষিত হতে পারে আর্থিক প্যাকেজ।
সকাল ১১.০০:
কলকাতায় পা রাখলেন মোদি। তাঁকে স্বাগত জানাতে ধনকড়, মমতার পাশাপাশি বিমানবন্দরে হাজির লকেট চট্টোপাধ্যায়, মুকুল রায়, রাজীব সিনহা-সহ বিজেপির একাধিক নেতা-নেত্রী। বিমানবন্দরে নেমেই মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যপালকে সঙ্গে নিয়ে চপারে উঠে পড়লেন মোদি।
সকাল ১০.২৫:
দুই ২৪ পরগণার বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা দেখানো হবে তাঁকে। বিধ্বস্ত বসিরহাটের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখানো হবে মোদিকে। সেখানেই মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি।
সকাল ১০.০০:
আকাশপথেই বাংলার এলাকাগুলি ঘুরে দেখার কথা প্রধানমন্ত্রীর। মমতার পাশাপাশি মোদির সফরসঙ্গী হতে পারেন রাজ্যপালও।
সকাল ৯.২০:
মোদিকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে হাজির মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। উপস্থিত থাকার কথা বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষেরও। বাংলায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার একটি ম্যাপ তৈরি করেছে প্রশাসন। যা মমতা তুলে দেবেন মোদির হাতে।

mamata
সকাল ৯.০০:
আমফানে বিধ্বস্ত বাংলা। এই পরিস্থিতিতে বাংলার পাশে দাঁড়াতে কেন্দ্রকে অনুরোধ জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতার ডাকে সাড়া দিয়ে এ রাজ্যে আসছেন মোদি। দিল্লি থেকে বাংলার উদ্দেশে রওনা প্রধানমন্ত্রীর।

[আরও পড়ুন: আমফানে সুন্দরবনে স্তব্ধ বিদ্যুৎ পরিষেবা, স্বাভাবিক হতে লাগতে পারে মাসখানেক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement