BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অবাধ নির্বাচনের স্বার্থে অনুব্রতকে গৃহবন্দি করার দাবি, কমিশনে ভোটকর্মীরা

Published by: Tanujit Das |    Posted: April 28, 2019 10:30 am|    Updated: April 28, 2019 3:32 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বীরভূমে ভোট শান্তিপূর্ণ করতে হলে গৃহবন্দি করতে হবে ওই জেলার তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে৷ শনিবার রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দপ্তরে এমনই নজিরবিহীন দাবি পেশ করল ভোটকর্মীদের ঐক্য মঞ্চ৷ সংগঠনের সদস্যদের অভিযোগ, ওই জেলার দোর্দণ্ডপ্রতাপ এই তৃণমূল নেতা তাঁদের ভয় দেখাচ্ছেন৷ নির্বাচনের দিন শাসকদলের হয়ে কাজ করতে বলছেন৷ এবং একের পর এক ভাষণ ও মন্তব্যে তিনি যেসব হুঁশিয়ারি দিচ্ছেন, তাতে ভীত ও সন্ত্রস্ত তাঁরা৷ এভাবে সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন হওয়া সম্ভবপর নয় বলেও কমিশনে জানিয়েছে সংগঠনটি৷

[ আরও পড়ুন: রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রের তিনটি বুথে পুনর্নির্বাচনের সিদ্ধান্ত কমিশনের]

রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকদের কাছে সংগঠনের কর্মীদের দাবি, ভোটের দিন অনুব্রত মণ্ডলকে গৃহবন্দি করে রাখতে হবে৷ তিনি যাতে কোনওভাবেই বাইরের কারও সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পারেন সেই ব্যবস্থা করতে হবে৷ প্রয়োজনে তাঁকে বিশেষ নজরদারির মধ্যে রাখতে হবে৷ তবেই ওই জেলায় ভোট শান্তিপূর্ণভাবে করা সম্ভব হবে৷ না হলে তা সম্ভবপর নয়৷ এমনকী তাঁরা এও জানান, অনুব্রত মণ্ডল বারবারই বলে এসেছেন ভোটের দিন বুথে একটা মাছিও গলতে পারবে না৷ ভোটকর্মীদের প্রশ্ন, তবে তাঁদের বুথে থাকার কী দরকার? অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানোর পাশাপাশি, অভিযোগপত্রে ডায়মন্ড হারবারের বাম প্রার্থী ফুয়াদ হালিমের বারবার আক্রান্ত হওয়ার বিষটিকেও উল্লেখ করেন ভোটকর্মীদের এই সংগঠন৷ এক্ষেত্রে তাঁদের অভিযোগ, কমিশন একজন প্রার্থীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে না পারলে, ভোটগ্রহণের দিন ভোটকর্মী ও সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা কীভাবে সুনিশ্চিত হবে? এভাবে চললে ভোট বয়কটেরও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সংগঠনের সদস্যরা৷

[ আরও পড়ুন: সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয়তার লড়াই, রাহুলকে হারালেন মমতা ]

একদিকে কলকাতায় যখন তাঁর বিরুদ্ধে ভোটকর্মীরা কমিশনে অভিযোগ জানাচ্ছেন, তখন নিজের গড় বীরভূমে একই মুডে রয়েছেন অনুব্রত মণ্ডল৷ শেষ মুহূর্তের প্রচারেও বিরোধীদের প্রচ্ছন্ন হুমকি দেন তিনি৷ ভোটের দিন বীরভূমের দুটি লোকসভা কেন্দ্রজুড়ে কী কী ব্যবস্থা থাকবে, শনিবার সে বিষয়েই প্রশ্ন করা হয় দোর্দণ্ডপ্রতাপ তৃণমূল নেতাকে৷ নির্বাচন কমিশনের চোখরাঙানিতে তাঁর বিশেষ কিছুই যে যায় আসে না, স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিমায় মুখ খুলে আরও একবার তা প্রমাণ করেন অনুব্রত মণ্ডল৷ এদিন তিনি বলেন, ‘‘পাচন থেকে নকুলদানা ভোটের দিন সব দেখতে পাবেন৷ আদর, সোহাগ সব থাকবে৷ মানুষকে জল দেব৷ নকুলদানা দেব৷ সব দেব৷ বিরোধীদের জন্য নকুলদানা থাকবে৷’’ বীরভূম, বর্ধমান সর্বত্রই যে ঘাসফুল শিবিরের প্রার্থীরাই জয়ী হবেন, ভোটের আগে আরও একবার সেকথা জানিয়ে দেন অনুব্রত৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement