BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রাজ্য দাম বেঁধে দিলেও বাজারে অগ্নিমূল্য আলু, মাথায় হাত মধ্যবিত্তের

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: August 13, 2020 9:34 pm|    Updated: August 13, 2020 9:34 pm

An Images

‌সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ লকডাউনে (Lockdown) অন্যান্য আনাজপাতির সঙ্গে মধ্যবিত্তদের হেঁশেলে আলুও যেন মহার্ঘ। আর তাই গত শুক্রবার রাজ্য সরকার ঘোষণা করে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় আলুর (Potato) দাম কমিয়ে ২৫ টাকার মধ্যে আনতে হবে। কিন্তু নবান্নের সেই ঘোষণাই সার। বাজারে এখনও অগ্নিমূল্য আলু। শহরের সব বাজারেই বৃহস্পতিবার জ্যোতি আলু বিক্রি হয়েছে কেজিপ্রতি ২৮ থেকে ৩০ টাকা। আবার চন্দ্রমুখী বিক্রি হচ্ছে কোথাও কেজিপ্রতি ৩৪ তো, কোথাও ৩৫ টাকায়।যদিও বাজারে খুচরো বিক্রেতাদের দাবি, পাইকারি বাজার থেকে তাদের চড়া দামে আলু কিনতে হচ্ছে। আর পাইকারি ব্যবসায়ীদের পালটা দাবি, ভিন রাজ্যে পাচার হয়ে যাচ্ছে আলু, তাই কমছে না দাম।

[আরও পড়ুন: রাজনৈতিক হিংসায় নিহত কর্মীদের স্বাধীনতা দিবসে শ্রদ্ধা জানাবে বঙ্গ বিজেপি]

করোনা আবহে দীর্ঘদিন বন্ধ স্বাভাবিক যোগাযোগ ব্যবস্থা। অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রয়েছে লোকাল ট্রেন (Train)। যানবাহন চলাচল শুরু হলেও তার ওপর রয়েছে বিস্তর সরকারি বিধি নিষেধ। স্বাভাবিক ভাবেই ব্যবসায়ীদের বক্তব্য যোগাযোগ ব্যবস্থার অস্বাভাবিকতার জন্য পরিবহন খরচ বেড়ে গিয়েছে অনেকটাই। আর তাই বাজারে আলু–সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দামও বেশি।কিন্তু কেন এই মূল্যবৃদ্ধি? এক ব্যবসায়ীর বক্তব্য, পাইকারি বাজারে এক বস্তা অর্থাৎ ৫০ কেজি আলু কিনতে লাগে প্রায় ১৩০০ টাকা। তারপর সেই আলু নিয়ে আসার হাজারও ঝামেলা। সব মিলিয়ে কেজিপ্রতি ৩০ টাকায় বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন খুচরো ব্যবসায়ীরা।

[আরও পড়ুন: ‘পড়ুয়া-অভিভাবকদের কথায় স্কুল খুলেছিলাম’, শোকজের জবাবে ভুল স্বীকার প্রধান শিক্ষকের]

এর আগেও এই নিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে আলুর দাম কমাতে বলেছিল রাজ্য। সেই অনুযায়ী অনেক জেলাতেই আলুর দাম অনেকটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে। ২৭ টাকা কিলো দরে মিলেছে আলু। তবে কলকাতা বা তার আশপাশে দাম কমার এখনও কোনও লক্ষণ নেই। ইতিমধ্যে সুফল বাংলার স্টল থেকে সরকার নির্ধারিত দামে আলু বিক্রি চলছে। এই পরিস্থিতিতে কলকাতা (Kolkata) ও সংলগ্ন এলাকায় অন্তত আলুর দাম যাতে নিয়ন্ত্রণে থাকে সেই কারণেই গত শুক্রবার নতুন করে তাদের ডেকে বৈঠক করে নবান্ন (Nabanna)। সেখানেই বুধবার পর্যন্ত সময়সীমা বেঁধে জানিয়ে দেওয়া হয়, প্রতি কিলো জ্যোতি আলুর দাম ২৫ টাকার মধ্যে নামিয়ে আনতেই হবে। খুচরো বাজার অনুযায়ী আলুর মূল দাম ধরতে হবে কিলোপ্রতি ২৩ টাকা। বাকি দু’টাকা জ্বালানি খরচ বাবদ নেওয়া যাবে।কিন্ত কোথায় কী! খুচরো বাজারে ৩০ টাকা কিলো দরেই এখনও মিলছে আলু। কোথাও কোথাও আরও বেশি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement