ad
ad

Breaking News

Sandeshkhali

রাজ্যপালের পায়ে পড়ে কান্নাকাটি সন্দেশখালির ‘নির্যাতিতা’দের, ‘অ্যাকশনে’র আশ্বাস বোসের

কেরল সফর কাটছাঁট করে সন্দেশখালিতে রাজ্যপাল।

Sandeshkhali women cried for help as Guv Bose arrives in tensed area । Sangbad Pratidin

রাজ্যপালের পায়ে পড়ে কান্নাকাটি সন্দেশখালির 'নির্যাতিতা'দের

Published by: Sayani Sen
  • Posted:February 12, 2024 2:45 pm
  • Updated:February 12, 2024 5:40 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শিবু, শাহজাহানদের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসছে সন্দেশখালি। দফায় দফায় বিক্ষোভ, অগ্নিসংযোগের পর এবার রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোসের কাছে কাতর আর্জি মহিলাদের। অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেপ্তারির দাবি জানান তাঁরা। কড়া পদক্ষেপের আশ্বাস রাজ্যপালের।

কেরল সফর কাটছাঁট করে সোমবার সকালে দমদম বিমানবন্দরে পৌঁছন রাজ্যপাল বোস। সেখান থেকে সড়কপথে সোজা সন্দেশখালির উদ্দেশে রওনা দেন। সন্দেশখালির কাছে মিনাখাঁর বামনবাজারের কাছে ১০০ দিনের বকেয়ার দাবিতে তাঁর কনভয়ের সামনে বিক্ষোভ দেখানো হয়। তবে শেষমেশ ধামাখালি নদী পেরিয়ে সন্দেশখালি পৌঁছন রাজ্যপাল। প্রথমে ত্রিমোহনী বাজারে যান। সেখানে স্থানীয় মহিলাদের কাছে নানা অভাব অভিযোগের কথা শোনেন রাজ্যপাল। এক এক করে তাঁদের হাড়হিম করা অভিজ্ঞতার কথা রাজ্যপালকে জানান। শিবু, শাহজাহানদের বিরুদ্ধে কেউ করেন শ্লীলতাহানির অভিযোগ। আবার কারও দাবি জমিজমা লুটপাট করে নিয়েছেন সন্দেশখালির ‘বেতাজ বাদশা’। পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন বহু মহিলা। অভিযুক্তদের কঠোরতম শাস্তির দাবি জানান গ্রামের নির্যাতিতা মহিলারা। 

[আরও পড়ুন: ১০০ দিনের বকেয়ার দাবি, সন্দেশখালির পথে আটকে পড়ল রাজ্যপালের কনভয়]

তাঁদের অভিযোগ শোনার পর যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন রাজ্যপাল। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, “গুন্ডারা বাড়িতে ঢুকে মহিলা, শিশুদের হেনস্তা করছে। সন্দেশখালিতে শিউরে ওঠার মতো ঘটনা ঘটছে। সন্দেশখালিতে যা হয়েছে তা লজ্জার। রবীন্দ্রনাথের জায়গায় এমন ঘটনা ঘটতে পারে তা বিশ্বাস করতে পারি না। সংবিধানের আওতায় থেকে আমার পক্ষে যা সম্ভব তেমন লড়াই করব। ভয় পাবেন না, পাশে আছি।”

দেখুন ভিডিও:

উল্লেখ্য, আপাতত ইডির স্ক্যানারে শেখ শাহজাহান। অন্তর্ধান রহস্যের এখনও কিনারা হয়নি। তারই মাঝে শাহজাহান এবং তাঁর সাঙ্গপাঙ্গদের গ্রেপ্তারির দাবি ফুঁসছে সন্দেশখালি। গত বুধবার বিকেল থেকে দফায় দফায় অশান্তি লেগেই রয়েছে বসিরহাটের সন্দেশখালি থানার ত্রিমোহিনী থেকে কাহারপাড়া, দাশপাড়া ও পাত্রপাড়ার মতো একাধিক গ্রাম। অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর, মহিলাদের বিক্ষোভে থমথমে গোটা এলাকা। অশান্তি সামাল দিতে শুক্রবার গভীর রাত থেকে এলাকায় জারি ১৪৪ ধারা। এই অশান্তির জেরে সন্দেশখালি এবং হিঙ্গলগঞ্জে বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা। এই ঘটনায় রাজ্যপাল রাজ্যের তরফে রিপোর্ট তলব করেছে। সন্দেশখালির ‘সন্দেশ’ সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে গ্রামে গ্রামে পরিদর্শনে রাজ্যপাল বোস।

[আরও পড়ুন: সন্দেশখালি নিয়ে প্রথমবার মুখ খুললেন মুখ্যমন্ত্রী, কী বললেন?]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ