BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে খাদ্য বণ্টনে বেনিয়মের অভিযোগ, শোকজের মুখে অঙ্গনওয়াড়ির ৭ কর্মী

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 24, 2020 6:03 pm|    Updated: April 24, 2020 6:03 pm

An Images

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: লকডাউনে খাদ্যসামগ্রী বণ্টন নিয়ে বেনিয়মের অভিযোগে পুরুলিয়ার সাত অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীকে শোকজের নোটিস ধরাল নারী ও শিশু কল্যাণ বিভাগ। এর আগে গণবন্টনের রেশন নিয়ে বেনিয়ম হওয়ার ঘটনায় চার রেশন ডিলারকে সাসপেন্ড করে পুরুলিয়া জেলা প্রশাসন।

লকডাউনে সরকারি পরিষেবায় কোনও অভিযোগ উঠলেই যে প্রশাসন কড়া ব্যবস্থা নেবে, তা আগেই জানিয়ে দেয়। সেই প্রেক্ষিতেই পুরুলিয়ার পুঞ্চা ব্লকের ন’পাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের দামোদরপুর গ্রামের একজন, কাশীপুর ব্লকের ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের চার জন ও কালিদহ, সোনাইজুড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের দু’জন অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী-সহ মোট সাত জনকে শোকজের নোটিস ধরানো হয়েছে। জেলাশাসক রাহুল মজুমদার জানান, দুটি ঘটনাতেই শোকজ করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: করোনা যুদ্ধের অন্য সৈনিক, নাকা চেকিংয়ে পুলিশের সঙ্গী আয়ুশ চিকিৎসকও]

নারী ও শিশু কল্যাণ বিভাগ জানিয়েছে, তদন্তে দেখা গিয়েছে, পুঞ্চা ব্লকের দামোদরপুর গ্রামে যে পরিমাণ চাল বরাদ্দ, তার থেকে প্রাপকরা কম পান। তবে যতটুকু চাল কম ছিল, তা প্রাপকদের দিয়ে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, কাশীপুরের তিনটি গ্রাম পঞ্চায়েত কাশীপুর, কালিদহ, সোনাইজুড়িতে পোকাযুক্ত ডাল দেওয়া হয়েছিল। এই অভিযোগ জেলাশাসকের কাছে জমা পড়তেই তিনি ওই ডালের নমুনা সংগ্রহ করে তা দ্রুত বদলে দেওয়ার নির্দেশ দেন।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ৯ RPF জওয়ান, রেলের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত গাফিলতির অভিযোগ]

সেই কাজও ইতিমধ্যে সম্পূর্ণ করেছে কাশীপুর ব্লক। বৃহস্পতিবার পাড়ায় গিয়ে সেখানকার রেশন ডিলারদের সঙ্গে বৈঠক করেও পণ্যসামগ্রী বিলিতে যাতে কোনও বেনিয়ম না হয়, সেই বিষয়ে সতর্ক করে আসেন স্বয়ং জেলাশাসক। জেলার সব বিডিওকেই তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, সাধারণ মানুষের ঘরে যাতে সরকারি খাদ্যসামগ্রী সঠিক সময়ে পৌঁছে যায়, সেই বিষয়ে নিয়মিত নজরদারি চালাতে হবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement