BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে বেনজির উদ্যোগ, মহিলাদের বাড়িতে স্যানিটারি ন্যাপকিন পৌঁছে দিল SFI

Published by: Bishakha Pal |    Posted: April 6, 2020 8:20 pm|    Updated: April 6, 2020 8:30 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নেই যোগান। তাই লকডাউনের মধ্যে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে গিয়ে নাকানিচোবানি খাচ্ছেন মধ্যবিত্তরা। শুকনো খাবার কিনতে গিয়ে মুদির দোকানে শুনতে হচ্ছে ‘শেষ হয়ে গিয়েছে’। একই অবস্থা স্যানিটারি ন্যাপকিনের ক্ষেত্রেও। পাড়ার ওষুধের দোকানে স্টক শেষ। বড় দোকানেও পাওয়া যাচ্ছে না অতি প্রয়োজনীয় এই জিনিসটি। বারবার গিয়েও ফিরে আসতে হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যের মহিলাদের পাশে দাঁড়াল সিপিএমের ছাত্র সংগঠন এসএফআই। মহিলাদের অতি প্রয়োজনীয় এই সামগ্রী বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে তারা।

দেশজুড়ে এই লকডাউনের পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব ভুলে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করছে সবাই। অনেক অন্যের প্রয়োজনে এগিয়ে আসছে। অনেক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন খাবার তুলে দিচ্ছে অভুক্তদের মুখে। নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস কেনার জন্য অর্থ সাহায্যও করছে অনেকে। কিন্তু এসবের মাঝে স্যানিটারি ন্যাপকিনের উল্লেখ নেই কোথাও। লকডাউনের আগে যাঁরা প্যাড কিনে বাড়িতে মজুত রেখেছিলেন, তাঁদের কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু অনেকেই শেষ মুহূর্তে দোকানে গয়ে খালি হাতে ফিরেছেন। আশা ছিল কিছুদিন পরে হয়তো যোগান আসবে। কিন্তু অনেককেই ফিরতে হচ্ছে খালি হাতে। দোকানে স্টক শেষ। মহিলাদের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় এই সামগ্রী দিতে এবার এগিয়ে এল এসএফআই।

[ আরও পড়ুন: ‘মানুষ বোমা ফাটিয়ে যদি আনন্দ করে অন্যায়টা কী?’, সমালোচনায় পালটা প্রশ্ন দিলীপের ]

রাজ্য সংগঠন সূত্রে এই জানা গিয়েছে, মার্চের ২৫ তারিখ থেকেই মহিলাদের জন্য বাড়িতেই স্যানিটারি ন্যাপকিন পৌঁছে দিচ্ছেন সংগঠনের সদস্যরা। এখনও পর্যন্ত হাজার পাঁচেক প্যাড পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। যাঁদের প্যাড কেনার সামর্থ নেই তাঁদের বিনামূল্যেই এগুলি দেওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন প্রস্তুতকারী সংস্থা থেকে স্যানিটারি ন্যাপকিন কেনা হয়েছে। সেগুলোই মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। সম্প্রতি নদিয়া জেলায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্যানিটারি ন্যাপকিন পৌঁছে দেওয়ার কাজ করেছেন এসএফআই সদস্যরা। তার ছবিও প্রকাশ পেয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

[ আরও পড়ুন: ঘরে থাকলেই মিলবে শাড়ি! লকডাউনে মহিলাদের গৃহবন্দি করতে অভিনব পদক্ষেপ বনগাঁয় ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement