১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘সারফেস ওয়াটার পরিশ্রুত করে পানীয় জল সরবরাহ করুন’, জেলা পরিষদকে পরামর্শ মন্ত্রীর

Published by: Bishakha Pal |    Posted: August 13, 2019 7:48 pm|    Updated: August 13, 2019 7:49 pm

S&M minister said to use surface water as drinking water

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: কম বৃষ্টির কারণে সেচের জলের সংকট দেখা দিয়েছে। আবার ভূগর্ভস্থ জলের ভাঁড়ারও ফুরিয়ে আসছে। বহু জায়গাতেই দেখা দিচ্ছে পানীয় জলের সংকট। ভূগর্ভস্থ জলস্তর নেমে যাওয়ায় টিউবওয়েলে জল উঠছে না অনেক জায়গায়। আবার সাবমার্শিবল পাম্পেও জল কম উঠতে শুরু করেছে। বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে পানীয় জল সরবরাহে ব্যবহার করা হয় ভূগর্ভের জল। এই সংকটকালে সারফেস ওয়াটার বা ভূ-পৃষ্ঠের জল ব্যবহার করে পানীয় জল সরবরাহ প্রকল্প করার জন্য পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদকে পরামর্শ দিলেন রাজ্যে ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পমন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। জেলার বিভিন্নপ্রান্তে বিশাল বিশাল জলাশয় রয়েছে, সায়র, দিঘি রয়েছে, তার জল পরিশ্রুত করে পানীয় জল সরবরাহ প্রকল্প গড়ার জন্য বলেছেন জেলা পরিষদের কর্তাদের। জেলা পরিষদের তরফে সেই ব্যাপারে পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

[ আরও পড়ুন: গাছগাছালি ঘেরা পার্কে সরকারি প্রকল্পের প্রচার, অভিনব উদ্যোগ পুরুলিয়া জেলা প্রশাসনের ]

সেই নয়ের দশক থেকে স্বপনবাবু পূর্বস্থলী এলাকায় খাল-বিল রক্ষা নিয়ে আন্দোলন শুরু করেন। খাল-বিলকে বাঁচিয়ে রাখতে গ্রামের পর গ্রামে ঘুরেছেন সাইকেল নিয়ে। জল সংরক্ষণ নিয়ে তাঁর সেই আন্দোলনের ফলে পূর্বস্থলীর চাঁদের বিল ও বাঁশদহ বিল সংরক্ষিত হয়েছে। সেই আমলে খাল-বিল উৎসব শুরু করেন। যা আজও চলছে। চাঁদের বিল ও বাঁশদহ বিলকে কেন্দ্রে জল সংরক্ষণ যেমন হয়েছে তেমনই চুনো মাছও সংরক্ষিত হচ্ছে সেখানে। দুই বিলকে কেন্দ্র করে পর্যটন কেন্দ্রও গড়ে উঠেছে সেখানে। পূর্ব বর্ধমান জেলার বিভিন্ন প্রান্তে তেমনই বহু খাল-বিল রয়েছে। প্রয়াত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজিত পাঁজার গ্রামের বাড়ি মঙ্গলকোটের মাজিগ্রামে।সেখানেও বিশাল জলাশয় রয়েছে। রায়না, খণ্ডঘোষেও রয়েছে বিশাল বিশাল জলাশয়।

[ আরও পড়ুন: রাতের আকাশে অকাল দীপাবলি, আজ ও আগামিকাল উল্কাবৃষ্টির খবর দিল নাসা ]

স্বপনবাবু বলেন, “জলের এখন গভীর সংকট চলছে। ভূগর্ভের জল যত কম ব্যবহার করা যায় ততই ভাল। তাই আমি জেলা পরিষদকে বলেছি জেলার বিভিন্ন এলাকায় পানীয় জল সরবরাহের যে সব প্রকল্প হবে তা এই সব জলাশয় বা সারফেস ওয়াটার ব্যবহার করে করা যায় কি না তা দেখার জন্য। এটা করতে পারলে ভূগর্ভের জলের ব্যবহার কমানো যাবে।” জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া জানান,জল দুষ্প্রাপ্য হয়ে উঠছে। জল সংরক্ষণের খুবই প্রয়োজন রয়েছে। তিনি বলেন, “মন্ত্রী আমাদের পরামর্শ দিয়ে জলাশয়ের জল পরিশ্রুত করে পানীয় জল হিসেবে সরবরাহ করার বিষয়ে। আমরা জেলা পরিষদের তরফে তা করার চেষ্টা করব। তাতে ভূগর্ভের জলের ব্যবহার কম হবে।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে