১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: হাতে-গলায় সাপ জড়িয়ে ভয় দেখিয়ে টাকা তোলার এ এক অভিনব কৌশল! মনসা পুজোর পরের দিন সোমবার এমন ঘটনারই সাক্ষী থাকল পুরুলিয়ার ঝালদা শহর। এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়ায়।

[আরও পড়ুন: হুঁশ ফিরল প্রশাসনের, নুন-ভাতের পরিবর্তে পড়ুয়াদের পাতে ডিম-ভাত]

জানা গিয়েছে, ঝালদা শহরের তিন নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা পেশায় গৃহশিক্ষিকা পারমিতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে ভরসন্ধেবেলায় পাঁচটি সাপ নিয়ে হাজির হয় তিন যুবক। সাপ দেখিয়ে তারা ওই শিক্ষিকার কাছে টাকা দাবি করে বলে অভিযোগ। ওই গৃহশিক্ষিকা একশো টাকা দিয়েও দেন। কিন্তু  পাঁচটি সাপ দেখিয়ে তারা পাঁচশো টাকা দাবি করতে থাকে বলে অভিযোগ। কিন্তু সেই টাকা ওই শিক্ষিকা দিতে না চাওয়ায় তিনটি সাপ ঘরে ছেড়ে দেওয়া হয়।  টিউশন পড়তে আসা ছাত্রছাত্রীরা ভয়ে এদিক সেদিক ছুটতে থাকে। পড়ুয়াদের এমন অবস্থা দেখে ওই শিক্ষিকা শেষপর্যন্ত যুবকদের দাবিমত টাকা দিতে রাজি হন। তখন ওই তিন যুবক সাপ গুলিকে ধরে নেয়।

ওই শিক্ষিকা বলেন, “এ তো দেখছি সাপ নিয়ে ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করা।  এলাকার মানুষজন সঙ্গে সঙ্গে না এলে কী হত কে জানে।” এই ঘটনার কথা শুনে ওই দিন এলাকায় মানুষজনের ভি়ড় জমে যায়। ফলে তারা সাপ নিয়ে চম্পট দেয়। ঘটনাস্থলে আসেন পুরপ্রধানও। ওই শিক্ষিকা সিসিটিভি ফুটেজ দেখে সমগ্র ঘটনার কথা জানান। পুরপ্রধান প্রতিবাদ করলে তাঁকেও হেনস্তা করা হয় বলে অভিযোগ। ওই তিন যুবককে আটক করেছে পুলিশ। পুরপ্রধান প্রদীপ কর্মকার বলেন, ওই দিনের রাতের ঘটনায় অবাক হয়ে গিয়েছি। 

[আরও পড়ুন: বোনঝিকে অপহরণ করে পানশালায় নাচগান করানোর ছক, পুলিশের জালে কিশোরীর মাসি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং