২ শ্রাবণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ব্যবসায়ীদের বনধকে কেন্দ্র করে ফের রণক্ষেত্র জগদ্দলের ঘোষপাড়া৷ শনিবার সকালে পর্নো বাজার এলাকায় বনধ সমর্থনকারীদের অভিযোগ, তল্লাশির নামে দোকানে লুট করছে পুলিশ৷ হেনস্তা করা হচ্ছে ব্যবসায়ীদের৷ তারই প্রতিবাদে শনিবার সকালে পথ অবরোধ করেন তাঁরা৷ বিক্ষোভকারীদের হঠাতে যায় পুলিশ৷ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন পুলিশ কর্মীরা৷ ব্যবসায়ীরা পালটা পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর চালান বলে অভিযোগ৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লাঠিচার্জ করে পুলিশ৷ মুহূর্তের মধ্যেই কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় পর্নো বাজার এলাকা৷

[ আরও পড়ুন: বোমাবাজি-গুলিতে উত্তপ্ত ডোমকল, খুন ৩ তৃণমূল কর্মী]

ভোটের আগে থেকে জগদ্দলে অশান্তি লেগেই রয়েছে৷ বোমাবাজির মতো ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার৷ পর্নো বাজারের দোকানগুলিতে বোমা-গুলি লুকিয়ে রাখা হয়েছে বলে সন্দেহ করেন পুলিশ আধিকারিকরা৷ শুক্রবার রাতে দোকান এবং বাড়িগুলিতে তল্লাশি শুরু করেন তাঁরা৷ ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, দোকানে তল্লাশির নামে লুট করা হয়েছে৷ ব্যবসায়ীদের হেনস্তা করা হয়েছে বলেও অভিযোগ৷

পুলিশের বিরুদ্ধে লুটের অভিযোগ তুলে, ঘটনার প্রতিবাদে শনিবার সকালে দোকান লাগোয়া পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন ব্যবসায়ীরা৷ অবরোধ তোলার নির্দেশ দেন পুলিশ আধিকারিকরা৷ কিন্তু অবরোধ তুলতে অস্বীকার করেন ব্যবসায়ীরা৷ পুলিশের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন তাঁরা৷ বাদানুবাদ চলাকালীন বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছোঁড়ে৷ অন্তত চারটি গাড়ির কাঁচ ভেঙে গিয়েছে৷ বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী আক্রান্তও হন৷

[ আরও পড়ুন: কর্মবিরতির মাঝেও পরিষেবা সচল রেখে ব্যতিক্রমী বেশ কয়েকটি সরকারি হাসপাতাল]

পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বিশাল পুলিশবাহিনী৷ নামানো হয় ব়্যাফ৷ বিক্ষুব্ধ ব্যবসায়ীদের হঠাতে পালটা লাঠিচার্জ করে পুলিশ৷ কাঁদানে গ্যাসও ছোঁড়া হয়৷ উঠে যায় অবরোধ৷ এই ঘটনার পর থেকে শুনশান পর্নো বাজার৷ আপাতত বন্ধ রয়েছে সমস্ত দোকানপাট৷ এলাকায় টহল দিচ্ছে বিশাল পুলিশবাহিনী৷ ভোটের আগে থেকেই রাজনৈতিক সংঘর্ষে দফায় দফায় উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে ভাটপাড়ার বিস্তীর্ণ এলাকা৷ বারবার অশান্তির জেরে আতঙ্কিত স্থানীয় বাসিন্দারা৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং