BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতায় রেল-সড়ক অবরোধ, ভোগান্তির শিকার যাত্রীরা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: December 14, 2019 9:00 am|    Updated: December 14, 2019 9:08 am

Some people protest against citizenship amendment act on saturday

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ব্যুরো:  নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল আইনে পরিণত হতেই ক্ষোভে ফুঁসছে রাজ্যবাসী। যার জেরে চরম ভোগান্তির শিকার সাধারণ মানুষ। শনিবার সকাল থেকেই বসিরহাট, মুর্শিদাবাদের বিভিন্ন স্টেশন ও রাজ্য সড়কে চলছে অবরোধ। যার জেরে স্তব্ধ যান চলাচল। ভোগান্তির শিকার যাত্রীরা।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বা CAB-এ সিলমোহর দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। এরপর থেকে ক্রমশই চড়ছে উত্তেজনার পারদ। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতা সুর চড়াচ্ছেন স্থানীয়রা। শনিবার সকালে শিয়ালদহ-হাসনাবাদ শাখার হাড়োয়া স্টেশনে রেল লাইনে অবরোধ করেন স্থানীয়রা। বিক্ষোভ দেখানো হয় হাসনাবাদ শাখারও আরও বেশ কয়েকটি স্টেশনে। অবরোধের জেরে দীর্ঘক্ষণ ব্যাহত ট্রেন চলাচল।

একই ছবি মুর্শিদাবাদে। শনিবার সকাল থেকেই মুর্শিদাবাদের পোড়াডাঙা স্টেশনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে একদল। বিক্ষোভের জেরে লালগোলা থেকে কৃষ্ণনগর পর্যন্ত ট্রেন চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ। জঙ্গিপুর স্টেশনে দাঁড়িয়ে ইন্টারসিটি এক্সপ্রেস। তবে শিয়ালদহ থেকে পলাশী পর্যন্ত স্বাভাবিক ট্রেন চলাচল। শনিবার সকালেও কার্যত থমথমে বেলডাঙা। এলাকায় ঢুকতে সাহস পাচ্ছে না কেউ। দেখা মিলছে না পুলিশেরও। সেই সঙ্গে রঘুনাথগঞ্জে অবরুদ্ধ জাতীয় সড়কও। সকাল হতেই রাস্তা আটকে বিক্ষোভ দেখায় একদল। জ্বালানো হয় টায়ার। স্বাভাবিকভাবে সড়ক পথেও গন্তব্যে পৌঁছতে পারছেন না যাত্রীরা। ফলে বিরক্ত নিত্যযাত্রীদের একাংশ।

[আরও পড়ুন: হিন্দু জাগরণ মঞ্চের সভা ঘিরে উত্তেজনা চন্দ্রকোণা রোডে, আটকানো হল নেত্রীকে]

প্রসঙ্গত, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতায় শুক্রবার থেকেই রণক্ষেত্র চেহারা নিয়েছে রাজ্যের বিভিন্নপ্রান্ত। গতকাল আন্দোলনকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয় মুর্শিদাবাদের বেলডাঙা স্টেশনে। রেল অবরোধে বাধা দিতে গেলে বেধড়ক মারধর করা হয় আরপিএফ কর্মীদের। তাতে গুরুতর জখম হন একজন। কেবিনম্যানকে মারধরের পাশাপাশি স্টেশনে ভাঙচুর এবং আগুনও লাগিয়ে দেওয়া হয়। দীর্ঘক্ষণ বন্ধ থাকে ট্রেন। বিক্ষোভের জেরে শুধু মুর্শিদাবাদ নয়, হাওড়া, উলুবেড়িয়া, ডায়মন্ড হারবার-সহ একাধিক লানে দীর্ঘক্ষণ স্তব্ধ হয়ে যায় রেল চলাচল। কয়েকঘণ্টা পর স্বাভাবিক হয় পরিস্থিতি। তবে রাত পার হতেই ফের শুরু অশান্তি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে