১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘রাজ্যে বিনামূল্যে টিকাকরণের ঘোষণা, টিকাশ্রী বলে চালাবেন না তো?’ মমতাকে খোঁচা শুভেন্দুর

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 10, 2021 5:34 pm|    Updated: March 15, 2021 7:41 pm

Suvendu Adhikari mocks Bengal Government over Free COVID-19 Vaccine | Sangbad Pratidin

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: জনসভার অনুমতি মেলেনি। তাই রাস্তা অবরুদ্ধ করে পুরুলিয়ার হাটতলা মোড়ে পথসভা করলেন শুভেন্দু অধিকারী। আর সেই সভায় কোভিড টিকা থেকে স্বাস্থ্যসাথী, সরকারি চাকরি থেকে তোলাবাজি-একাধিক ইস্যুতে তৃণমূল সরকারকে তুলোধোনা করলেন তিনি। পথসভার মঞ্চ থেকে বিনামূল্যে কোভিড টিকা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকেও খোঁচা দিলেন শুভেন্দু।

রাজ্যবাসীকে বিনামূল্যে কোভিড ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার সভামঞ্চ থেকে সেই প্রতিশ্রুতি নিয়ে কটাক্ষ করলেন শুভেন্দু। তাঁর কথায়, “কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন আগেই জানিয়েছেন, দেশের মানুষ বিনামূল্যে টিকা পাবেন। প্রধানমন্ত্রীও জানিয়েছেন, প্রথম দফায় বিনামূল্যে টিকা পাবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। তারপরে এখন আবার রাজ্য বলছে রাজ্যবাসী বিনামূল্যে টিকা পাবেন।” মুখ্যমন্ত্রীকে খোঁচা দিয়ে শুভেন্দুর প্রশ্ন, “কেন্দ্রীয় প্রকল্পকে আবার টিকাশ্রী বলে চালাবেন না তো?”

[আরও পড়ুন : ‘যাঁরা বাংলার সংস্কৃতি জানেন না, তাঁরা বহিরাগত’, নাড্ডার পালটা রোড শোয়ে কটাক্ষ সোহমের]

শুধু টিকা নয়, বাংলায় কেন আয়ুষ্মান ভারত কার্যকর করা হল না, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। কেন্দ্রের কিষাণনিধি যোজনা নিয়ে এদিন অন্যভাবে সুর চড়িয়েছেন শুভেন্দু। এতদিন বিজেপির অভিযোগ ছিল, মুখ্যমন্ত্রী বাংলার কৃষকদের কথা ভাবেন না, তাই রাজ্যে কিষাণনিধি চালু করতে দেননি। কিন্তু সদ্য এই প্রকল্প চালু করতে রাজি হয়েছে রাজ্য সরকার। এবার বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুভেন্দুর দাবি, গত দু’বছর কেন এই প্রকল্প চালু করেনি রাজ্য? তাই এই প্রকল্প বাবদ কৃষকদের দু’বছরের বকেয়া টাকা রাজ্যকে মেটাতে হবে।

দলছাড়ার পরই শুভেন্দুর বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। সেই অভিযোগ উড়িয়ে এদিন শুভেন্দু বলেন, “চাকরি পাইয়ে দিতে তৃণমূল নেতারা টাকা নেন। এতে আমার কোনও হাত নেই। আমি এক টাকাও নিইনি। ” শুভেন্দুর আরও দাবি, পুরুলিয়ার কয়লা মাফিয়া লালা তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ঘনিষ্ঠ। পুরুলিয়ার পুলিশের বিরুদ্ধে তোষামোদের অভিযোগ এনেছেন তিনি। 

[আরও পড়ুন : স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড নিতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসা বিজেপি নেতার পরিবারের, অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির]

এদিন পুরুলিয়া জেলা বিজেপির সভাস্থল নিয়ে তীব্র টানাপোড়েন চলে। জনসভার অনুমতি না মেলায় রোড শো শেষে শেষপর্যন্ত কাশীপুর হাটতলা মোড়ে পথসভা করেন তিনি। ফলে আদ্রা, বাঁকুড়া যাওয়ার রাস্তা অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। এদিকে সভা চলাকালীন আদ্রার শহর তৃণমূল সভাপতি ধনঞ্জয় চৌবে গাড়ি নিয়ে ভিড়ের মধ্যে ঢুকে পড়েন। সঙ্গে সঙ্গে ওই গাড়ি লক্ষ্য করে ইঁট-পাথর ছুড়তে শুরু করেন বিজেপি কর্মীরা। এ নিয়ে সাময়িক উত্তেজনাও তৈরি হয়। তৃণমূল নেতার এই আচরণের তীব্র নিন্দা করেন শুভেন্দু। তাঁর কথায়, “আমি আশ্চর্য হয়ে যাচ্ছি! অনুমতি নিয়ে এই পথসভা হচ্ছে। তারপরেও কেউ কীভাবে এভাবে ঢুকে পড়তে পারে?”

দেখুন ভিডিও:

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে