BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভক্তদের আনাগোনায় সংক্রমণের আশঙ্কা, এখনই খুলছে না তারাপীঠ মন্দির

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 14, 2020 6:54 pm|    Updated: June 14, 2020 6:54 pm

An Images

নন্দন দত্ত, সিউড়ি: এখনই খুলছে না তারাপীঠ মন্দির, সেবাইতদের বৈঠকে গৃহীত হল এমনই সিদ্ধান্ত। জানা গিয়েছে, আগামী ২০ জুন ফের বৈঠকে মন্দির খোলার দিনক্ষণ নিয়ে আলোচনা হবে। তারপরই স্থির হবে যে, কবে খুলবে এই মন্দির।

আনলক ওয়ানে একাধিক মন্দির খুলে গিয়েছে। কিন্তু তারাপীঠ মন্দির খুলবে কি না তা নিয়ে সংশয় ছিলই। এরই মাঝে রবিবার বৈঠকে বসে মন্দির কমিটি। সেখানে কেউ দাবি করেন, খুলে দেওয়া হোক তারাপীঠ মন্দির। কেউ আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, বেশিরভাগ ভক্ত তথা পর্যটকরা হাওড়া- কলকাতার হওয়ায় মন্দির খুললে সংক্রমণ বাড়বে। কেউ রথের দিনই মন্দির খোলার পরামর্শ দেন। কারও যুক্তি আগামী ১৭ জুন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক। সেখানে ফের পাঁচ রাজ্যে কড়া পদক্ষেপ নিতে পারে কেন্দ্র। তাই কিছুদিন অপেক্ষা করা হোক। এরপরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে, আগামী ২০ জুন ফের বৈঠকে বসবে সেবাইত কমিটি, সেখানেই ঠিক হবে মন্দির খোলার দিন।

[আরও পড়ুন: বিরামহীন বৃষ্টিতে দার্জিলিংয়ে ধস, অল্পের জন্য বড়সড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা একই পরিবারের ৪ জনের]

এ প্রসঙ্গে সেবাইত কমিটির সম্পাদক ধ্রুব চট্টোপাধ্যায় বলেন, “অধিকাংশ সেবাইতের মত রাজ্যে যে হারে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তাতে ফের লকডাউন হতে পারে। তাই ১৭ জুন প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে কী সিদ্ধান্ত হয় জেনে ফের ২০ জুন বৈঠকে বসব। তারপর মন্দির খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।” মন্দিরের সেবাইত পুলক চট্টোপাধ্যায় বলেন, “তারাপীঠ মন্দিরে পুন্যার্থীদের একটা চাপ রয়েছে। অধিকাংশ পুন্যার্থী আসেন কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা থেকে। ওই সমস্ত এলাকায় এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। ফলে সেই সমস্ত এলাকা থেকে কেউ মন্দিরে পুজো দিতে এলে এখানেও গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়ে যাবে। তাই আমরা এখনই মন্দির না খোলার মতামত দিয়েছিলাম। অধিকাংশ সেবাইতের একই মতামত ছিল। তাই ঠিক হয় মুখ্যমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকের পর মন্দির খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে”।

ছবি: সুশান্ত পাল

[আরও পড়ুন: লকডাউন কাঁটা কন্যাশ্রীতেও, চলতি বছরে পশ্চিম বধর্মানে প্রকল্পের সুবিধা পেল না কোনও পড়ুয়াই]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement