BREAKING NEWS

১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  সোমবার ৫ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বন্ধ ক্লাসরুমে ঘুমিয়ে ছাত্রী, স্কুলে তালা দিয়ে চলে গেলেন শিক্ষক-শিক্ষিকারা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 14, 2018 8:30 pm|    Updated: February 14, 2018 8:30 pm

Teachers rush to home, minor student trapped in school

রঞ্জন মহাপাত্র, কাঁথি: অন্ধকার ক্লাসরুমের মধ্যে একা ছাত্রী। দম বন্ধ হয়ে আসা অবস্থা। একটু জল খেতে চেয়ে কান্না। কিন্তু ছোট্ট মেয়েটির কান্না শোনার মতো কেউ নেই। স্কুলে তখন ছুটি। সমস্ত ছাত্র ছাত্রী তখন বাড়ি চলে গিয়েছে। শিক্ষক-শিক্ষিকাও স্কুলের ঘরগুলিতে তালা ঝুলিয়ে বাড়ি চলে গিয়েছেন। কিন্তু ক্লাসরুমের মধ্যে রয়ে গিয়েছে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী সুপর্ণা গিরি। ক্লাসরুমে কেউ রয়ে গিয়েছে কি না তা না দেখেই শিক্ষিকা ক্লাসরুমের দরজা বন্ধ করে বাড়ি চলে যাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্থানীয়রা। এমন ঘটনাটি ঘটেছে পটাশপুর -২ ব্লকের পঁচেট এলাকার চকবেলা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

[জমি বিবাদে মা ও মেয়েকে ফেলে পেটাল যুবক, শ্লীলতাহানির অভিযোগ]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রোজকার মতো মঙ্গলবার স্কুলে আসে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী সুপর্ণা গিরি। সময়মতোই বিকাল ৩টের সময় স্কুল ছুটি হয়। স্কুল ছুটির সময় সুপর্ণা ঘুমিয়ে পড়ে। সেইসময় শিক্ষিকা ক্লাসরুমে কেউ রয়েছে কি না না দেখেই দরজা বন্ধ করে বাড়ি চলে যান। বিকাল ৫.৩০ পর্যন্ত খিদের মধ্যে সময় কাটে ছাত্রীর। এমনকি পানীয় জল না পেয়ে অসুস্থ ও হয়ে পড়ে ছাত্রী। অবশেষে সন্ধ্যা নাগাদ স্কুলের মাঠে খেলে বাড়ি ফেরার সময় স্থানীয় যুবকেরা স্কুলের মধ্যে থেকে এক শিশুর চিৎকার শুনতে পায়। তারা গিয়ে দেখে স্কুলের দরজায় তালা দেওয়া ঘরের মধ্যে রয়েছে ছাত্রী। তার পরেই যুবকেরা স্থানীয় শিক্ষক সৌভিক মহাপাত্রকে খবর দেন।

[করলাভ্যালিতে খুশির হাওয়া, চা বাগানে এবার রেশন দোকান চালাবেন মহিলা শ্রমিকরা]

খবর পেয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা তনুশ্রী দাসও স্কুলে ছুটে আসেন। শিক্ষক-শিক্ষিকাকে ঘিরে বিক্ষোভ শুরু করেন স্থানীয়রা। এমনকি ছাত্রীকে ক্লাসরুম থেকে বের করে এনে শিক্ষক-শিক্ষিকাকে ঘরের মধ্যে আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয়রা। ঘন্টা দুয়েক বিক্ষোভ চলার পরে শিক্ষক-শিক্ষিকা ভুল স্বীকার করার পরে তাদের মুক্ত করা হয়। পঁচেট গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য নীলমাধব দাস অধিকারী জানান, ক্লাস রুমে ছাত্রী রয়েছে না দেখেই বন্ধ করে দেওয়া হয় ঘর। পরে জানালা দিয়ে চিৎকার করলে স্থানীয়রা শিক্ষকদের ডেকে দরজা খুলে উদ্ধার করেন এবং শিক্ষক-শিক্ষিকাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান উত্তেজিত গ্রামবাসীরা। এর আগেও একাধিক এমন ঘটনা ঘটেছে। শিক্ষকরা সতর্ক না হওয়ার কারণে বারবার এমন ঘটনা ঘটছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে