১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

আকাশনীল ভট্টাচার্য, বারাকপুর: দীর্ঘদিন ধরে বেতন না পাওয়ায় ফের নতুন করে বিক্ষোভে শামিল হলেন উত্তর ২৪ পরগনার ভাটপাড়া পুরসভার কর্মীরা। যার জেরে পুরসভার গেট আটকে অস্থায়ী সাফাই কর্মী অবস্থানে নেমেছেন। পুরোপুরি বন্ধ পুর পরিষেবা। বৃহস্পতিবারও এনিয়ে পুরপ্রধানের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখনও কর্মীদের বেতনের টাকা এসে না পৌঁছনোয় তা দেওয়া সম্ভব হয়নি।

[আরও পড়ুন: ভেড়ির আড়ালে অস্ত্র কারখানার হদিশ মিনাখাঁয়, গ্রেপ্তার ২]

৫ মাসের বেতন বকেয়া। তার প্রতিবাদে সেই নভেম্বরের গোড়া থেকেই কর্মবিরতিতে নেমেছেন অস্থায়ী সাফাই কর্মীরা। পুর পরিষেবা একেবারে বন্ধ। যার জেরে ভাটপাড়া পুর এলাকায় জঞ্জালের স্তূপ বেড়েই চলেছে। পরিস্থিতি দেখে মাথায় হাত এলাকাবাসীর। এমনকী সাংসদকেও একদিন দেখা গিয়েছিল ঝাড়ু হাতে রাস্তা পরিষ্কার করতে। তা সত্ত্বেও পরিস্থিতির কোনও উন্নতি হয়নি। সাফাই কর্মীরা নিজেদের দাবিতে একেবারে অনড়। তাঁদের বক্তব্য, বকেয়া বেতন হাতে না পেলে কিছুতেই কর্মবিরতি থেকে সরে আসবেন না তাঁরা।
এবিষয়ে ভাটপাড়া পুরসভার উপ পুরপ্রধান সোমনাথ তালুকদার বলেন, ‘রাজ্যের ২৭টি পুরসভায় পুর ও নগরোন্নয়ন বিভাগের তরফে টাকা পৌঁছে গেলেও, বিজেপি পরিচালিত হওয়ায় ভাটপাড়ায় সেই টাকা এখনও পৌঁছায়নি। ফলে কর্মীদের বেতন দেওয়া যাচ্ছে না।’ এপ্রসঙ্গে পুরপ্রধান সৌরভ সিংয়ের অভিযোগ, বিজেপি পরিচালিত পুরসভায় বিমাতৃসুলভ আচরণ করা হচ্ছে রাজ্য সরকারের পুর বিভাগের তরফে।

গত এপ্রিল মাস থেকে ভাটপাড়া পুরসভার ক্ষমতা নিয়ে টানাপোড়েন চলছিল তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে। তখনকার পুরপ্রধান অর্জুন সিং শিবির বদলে বিজেপির তরফে লোকসভা ভোটের প্রার্থী হওয়ার পরই তাঁর বিরুদ্ধে অনাস্থা এনে পুরপ্রধানের পদচ্যুত করেছিলেন তৃণমূল কাউন্সিলররা। পরবর্তী সময়ে অর্জুন সিংয়ের অনুগামীরাও বিজেপিতে যোগদান করায় এই পুরসভায় ক্ষমতা হারাতে থাকে তৃণমূল। জুন মাসে
আস্থা ভোটে নিজের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করেন অর্জুন সিং। ভাটপাড়া পুরসভা বিজেপির দখলে চলে যায় এবং পুরপ্রধান হন অর্জুনের ভাইপো সৌরভ সিং।

[আরও পড়ুন: অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে স্টোনচিপসের স্তূপে উলটে পড়ল অটো, মৃত মহিলা]

কিন্তু যে পুরসভায় নভেম্বর থেকেই বেতন আটকে রয়েছে অস্থায়ী কর্মীদের, সেখানে বিজেপি পরিচালিত বলে বিমাতৃসুলভ আচরণের অভিযোগ নিয়েই প্রশ্ন উঠছে। অনেকের দাবি, ওই সময়ে তৃণমূল পরিচালিত পুরসভায় সাফাই কর্মীরা বেতন না পাওয়ার দায় বর্তাচ্ছে তৎকালীন পুরপ্রধান অর্জুন সিংয়ের উপরেই। কিন্তু তিনি তা এড়িয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ। তবে বেতন না পাওয়ায় অস্থায়ী কর্মীদের কর্মবিরতি ধীরে ধীরে বড়সড় বিক্ষোভের আকার নেওয়ায় এখন রীতিমতো আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং