২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আবহে রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে শুরু স্নাতকে ভরতি, কোথায় কবে জেনে নিন

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 9, 2020 5:41 pm|    Updated: August 9, 2020 5:54 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ব্যুরো: করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতিতে স্কুল-কলেজ কবে খুলবে, তা নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও পড়ুয়াদের ভরতির প্রক্রিয়া ফেলে রাখতে নারাজ রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলি। সোমবার থেকেই অনলাইনে ভরতি প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে তিন বিশ্ববিদ্যালয়ে। বর্ধমান, উত্তরবঙ্গ ও পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ কলেজগুলিতে স্নাতক স্তরে ভরতি নেওয়া হবে। গোটা প্রক্রিয়াই এবার হবে অনলাইনে। তবে তার জন্য কোথাও ভরতি ফি বাড়ানো হচ্ছে না বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর।

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের (University of Burdwan) অধীনস্ত ৬২টি কলেজগুলিতে স্নাতকস্তরে ভরতি প্রক্রিয়া চলবে ১০ আগস্ট থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। পূর্ব বর্ধমান ছাড়াও বীরভূম ও হুগলিতেও রয়েছে কলেজ। করোনা বিধি মেনে ভরতির জন্য কোনও পড়ুয়াকেই কলেজে যেতে হবে না। ভরতি ফি-ও গতবারের তুলনায় বাড়ানো হবে না। এই মর্মে গত সপ্তাহেই বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একগুচ্ছ নিয়মের কথাও উল্লেখ করা হয়েছিল সেই বিজ্ঞপ্তিতে। রেজিস্ট্রার অভিজিৎ মজুমদার স্নাতকস্তরে প্রথম বর্ষের প্রথম সেমেস্টারে ভরতির বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়েছিলেন –

  • সরকারি নির্দেশিকা মেনে উচ্চ মাদ্যমিকে প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মেধা তালিকা কলেজগুলিকে তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে। তার কপি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠাতে হবে।
  • আবেদনপত্র জমা দেওয়া ও ভরতি চলাকালীন কলেজে ছাত্রছাত্রীদের উপস্থিতির কোনও প্রয়োজন নেই। অ্যাডমিশন ফি-ও নিতে হবে অনলাইনে।
  • কোনও পড়ুয়া ভরতি হওয়ার পর ১০ দিনের মধ্যে বিষয় বা ধারা পরিবর্তনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। কলেজ কর্তৃপক্ষ পরবর্তী ৫ দিনের মধ্যে বিষয়টি চূড়ান্ত করবেন।
  • কোনও পড়ুয়া অন্য কলেজে চলে যেতে চাইলে বা ভর্তি বাতিল করতে চাইলে তাঁর অ্যাডমিশন ফি’র অর্থ ফেরত দিতে হবে। আর ওই আসনটি ফাঁকা তালিকায় যুক্ত করতে হবে।

[আরও পড়ুন: প্রেমিকার সঙ্গে ফোনালাপ, ঘনিষ্ঠতা, আচরণ সহ্য করতে না পেরে ছেলেকে খুন করল বাবা]

উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে প্রায় ৫০টি কলেজ আছে। সেখানেও ১০ তারিখ থেকে স্নাতক স্তরে ভরতি শুরু হবে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর, কলেজগুলিতে আবেদনপত্র দেওয়া চলবে ২৫ তারিখ পর্যন্ত। তার ভিত্তিতে ৩১ তারিখ চূড়ান্ত মেধা তালিকা প্রকাশিত হবে। মেধাতালিকায় যাদের নাম রয়েছে, তাদের কাছে এসএমএস (SMS) পাঠানো হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে। এরপর শুরু হবে ভরতির চূড়ান্ত প্রক্রিয়া। সেই দিনক্ষণ পরে জানিয়ে দেওয়া হবে।

[আরও পড়ুন: বারুইপুরে বিজেপির শক্তিক্ষয়, তৃণমূলে যোগ দিলেন চারশোর বেশি কর্মী]

অন্যদিকে, উত্তরবঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো একই নিয়মে ভরতি প্রক্রিয়া শুরু হবে কোচবিহারের পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ে। এখানে মোট কলেজের সংখ্যা ১৬টি, আসন সংখ্যা ১৫ হাজার প্রায়। সোমবার থেকে অনলাইনে ফর্ম দেওয়া এবং মেধা তালিকা প্রকাশের পর চূড়ান্ত ভরতির পদ্ধতি চালু হবে। এখানেও চূড়ান্ত মেধা তালিকা প্রকাশিত হবে ৩১ আগস্ট। কোনও কলেজে যাতে ভরতির জন্য বাড়তি ফি নেওয়া না হয়, তার জন্য কলেজগুলিকে আগে থেকেই নির্দেশ দিয়ে রেখেছে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়গুলি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement