৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজনৈতিক সংঘর্ষে ফের উত্তপ্ত নানুর। অনুব্রত মণ্ডলের গ্রামে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে চলল গুলি। অশান্তির মাঝে পড়ে গুলিবিদ্ধ হলেন এক নিরীহ গ্রামবাসী। ঘটনাস্থলেই প্রাণ গেল তাঁর। সোমবার দুপুরের এই ঘটনার পর থেকে থমথমে বীরভূমের নানুরের হাটসেরান্দি গ্রাম। অশান্তি রুখতে গোটা গ্রাম ঘিরে রেখেছে বিশাল পুলিশবাহিনী।

সোমবার সকাল থেকে দফায় দফায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ বাঁধে। দুপুর গড়াতে না গড়াতেই ওই সংঘর্ষ ব্যাপক আকার নেয়। নানুরের হাটসেরান্দি গ্রামে রীতিমতো আগুন জ্বলে ওঠে। তৃণমূল এবং বিজেপির দু’পক্ষের সংঘর্ষে চলে গুলি। অশান্তির মাঝে পড়ে যান শংকরী বাগদি নামে এক মহিলা। তাঁর বুকে গুলি লাগে। ঘটনাস্থলেই রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়েন তিনি। তাঁকে উদ্ধার করেন গ্রামবাসীরা। তবে ততক্ষণে মারা গিয়েছেন শংকরী। স্থানীয় সূত্রে খবর, শংকরী বাগদি নামে ওই মহিলার ছেলে বিজেপির সক্রিয় কর্মী। তাই তাঁর পরিবারের অভিযোগ, এই আক্রোশে তৃণমূল কর্মীরা শংকরীকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়।

[আরও পড়ুন: নিমতাকাণ্ডে প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য, জোরাল হচ্ছে দেবাঞ্জনের বান্ধবী যোগ]

অনুব্রত মণ্ডলের গ্রামের এই ঘটনায় রীতিমতো উত্তেজনা ছড়িয়েছে। ঘটনার খবর পাওয়ামাত্রই হাটসেরান্দি গ্রামে পৌঁছয় বিশাল পুলিশবাহিনী। নিহতের দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। গ্রামে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী। টহল দিচ্ছেন পুলিশকর্মীরা। তবে এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত তৃণমূল কিংবা বিজেপি কোনও পক্ষের প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং