BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

উত্থানের নন্দীগ্রামেই ত্রাণে দুর্নীতি! অভিযোগ প্রকাশ্যে আসতে ২০০ তৃণমূল নেতাকে শোকজ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 5, 2020 10:05 pm|    Updated: July 5, 2020 10:29 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আমফানের (Amphan) ত্রাণ নিয়ে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের তৃণমূল নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে বারবার দুর্নীতির অভিযোগ প্রকাশ্যে এসেছে। একাধিকবার সকলকে সতর্কও করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। কখনও মিষ্টি কথায় বুঝিয়েছেন, কখনও ধমক দিয়েছেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও অভিযোগ কমেনি। তাই এবার কড়া পদক্ষেপ নিল তৃণমূল। ত্রাণে দুর্নীতির অভিযোগে শোকজ করা হল নন্দীগ্রাম বিধানসভার ২০০ তৃণমূল নেতাকে। 

জানা গিয়েছে, আমফানের ক্ষতিপূরণে স্বজনপোষণের অভিযোগে শোকজের মুখে পড়েছেন নন্দীগ্রাম ১ ব্লকের সামসাবাদ, ভেকুটিয়া ও কেন্দামারি জলপাই পঞ্চায়েতের দলীয় প্রধান-সহ বহু নেতা। অভিযোগ, তাঁরা প্রত্যেকেই পরিবারের একাধিক সদস্যদের ক্ষতিপূ্রণ পাইয়ে দিয়েছে। যে কারণে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তরা ক্ষতিপূ্রণ পাননি। সূত্রের খবর, জুনের শেষে জেলা প্রশাসনের তরফে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা প্রকাশের পরই গোটা বিষয়টি সামনে আসে। এরপরই অভিযুক্তদের শোকজের পাশাপাশি অবিলম্বে টাকা ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। না হলে সকলের বিরুদ্ধে এফআইআর করা হবে। এ প্রসঙ্গে সাংসদ শিশির অধিকারী বলেন, “দল ক্ষমতা দিলে বেশ কিছু নেতাকে মুক্তি দিতে চাই। শোকজ তার প্রথম ধাপ। দল কোনওরকম অন্যায় বরদাস্ত করবে না।”

[আরও পড়ুন: নিজে অসুস্থ, তবু কর্তব্যের টানে বাঁ হাতে স্যালাইন নিয়েই রোগী দেখতে ব্যস্ত চিকিৎসক!]

নন্দীগ্রাম মানেই অন্য আবেগ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) কাছে। কারণ, ওই মাটি থেকেই উত্থান তাঁর। সেখানকার কর্মীদের এহেন আচরণে বেজায় ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী। প্রসঙ্গত, শুধু নন্দীগ্রাম নয়, ত্রাণে দুর্নীতির অভিযোগ প্রকাশ্যে আসায় মালদহের একাধিক তৃণমূল নেতাকেও শোকজ করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: দেখা করতে ডেকে প্রাক্তন প্রেমিকাকে ‘ধর্ষণ’ যুবকের, বাঁচানোর নামে অত্যাচার চালাল বন্ধুও]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement