BREAKING NEWS

২২  মাঘ  ১৪২৯  সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

শিল্প-শ্রমিকের সেতুবন্ধনে উন্নততর হলদিয়া গড়ার ডাক, ক্ষুদিরাম মেলার সূচনা শশী-কুণালের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: December 4, 2022 7:26 pm|    Updated: December 4, 2022 7:34 pm

TMC vows to make better Haldia industrial belt by combining with the labourers | Sangbad Pratidin

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: উন্নততর শিল্পনগরী, বন্দরনগরী হবে হলদিয়া (Haldia)। শিল্প থাকবে, শিল্পবান্ধব পরিবেশ থাকবে। শ্রমিক কল্যাণে কাজ হবে। লক্ষ্য শিল্প ও শ্রমিকের সেতুবন্ধনের মাধ্যমে হলদিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে রবিবার হলদিয়ার দুর্গাচকে ক্ষুদিরাম মেলার সূচনা করলেন রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী শশী পাঁজা (Shahsi Panja)। সঙ্গে ছিলেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ, প্রাক্তন মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র, হলদিয়া ডেভেলপমেন্ট অথরিটির চেয়ারম্যান জ্যোতির্ময় কর। নাম না করে এই মঞ্চে বিরোধী দলনেতার সমালোচনা করলেন কুণাল ঘোষ।

ক্ষুদিরাম মেলার সূচনা করে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কুণাল ঘোষের (Kunal Ghosh) মুখে শোনা গেল দিনবদলের কাহিনি। বললেন, সিপিএম জমানায় যা ছিল অধরা, তৃণমূল সরকার রাজ্যের ক্ষমতায় আসার পর মানুষ ভাল কাজের উপকার পেয়েছেন। এরপরই তাঁর কটাক্ষ, ”কিন্তু স্থানীয়ভাবে যাঁর চোখ দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই এলাকা দেখতে চেয়েছিলেন, তাঁর বিশ্বাসঘাতকতায় না হয়েছে দলের উপকার, না হয়েছে মানুষের উপকার। এবার আমরা উন্নততর হলদিয়া গড়ার কাজ করব।” এ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্ব ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেনাপতিত্বের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ”নির্দিষ্ট শিল্পনীতি তৈরি হয়েছে। Cod তৈরি হচ্ছে। যারা কারখানায় কাজ করছে, শ্রমিকের ভালমন্দ বুঝবেন, তাঁদের অংশগ্রহণ থাকবে, তাঁদের মধ্যে থেকেই শ্রমিক নেতা হবেন। কারখানায় আমাদের যে ইউনিট হবে, সেখানে শ্রমিক স্বার্থ অটুট রেখে শ্রমিক পরিবারগুলো যাতে তার ফল পায়।”

[আরও পড়ুন: অভিষেকের নির্দেশে ক্ষোভপ্রকাশ করেও ইস্তফা মারিশদার পঞ্চায়েত প্রধানের, পদ ছাড়লেন আরও ২]

হলদিয়ার ব্র্যান্ড ভ্যালু এখানকার কারখানা। ৫৪ টি কারখানার মধ্যে ১৮ টিই বড় কারখানা। ৬০-৬৫ হাজার শ্রমিক কাজ করেন। তাঁদের সকলে যাতে ভাল থাকেন, সেই ব্যবস্থা করতে বদ্ধপরিকর তৃণমূল। শিল্পমন্ত্রী শশী পাঁজার কথায়, ”মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর অনুপ্রেরণায় পূর্ব মেদিনীপুরে ভাল কাজ হচ্ছে। আমাদেরও তিনি এগিয়ে দিয়েছেন। শিল্পমন্ত্রী আমি একজন মহিলা। অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। আর আপনারা ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে’র মহিলা। দুয়ারে সরকার চলছে। এরকম সফল কর্মসূচি গোটা দেশে নেই।”

[আরও পড়ুন: ফাঁকা ক্লাসরুমে গণধর্ষিতা ১৩ বছরের কিশোরী! অভিযুক্ত ২ সহপাঠী]

মেলার উদ্বোধনী মঞ্চে ছিলেন হলদিয়া ডেভেলপমেন্ট অথরিটির চেয়ারম্যান জ্যোতির্ময় কর। তিনিও নাম না করে খোঁচা দিলেন শুভেন্দু অধিকারীকে (Suvendu Adhikari)। তাঁর বক্তব্য, ”একটা সময় শিল্প মালিকরা কাঁপত এক বাদশাহর জন্য। আমরা আবার নতুন শিল্প নগরী গড়ব। শিল্পপতিরা বলবেন, আবার হলদিয়া চলো। মাছ চাষের জন্য পুকুরগুলি আবার তৈরি করতে হবে। একদিকে শিল্প, আরেকদিকে মাছ চাষের কাজ হবে। সিসিটিভি ক্যামেরায় আমরা গোটা শিল্পনগরীকে মুড়ে দেব।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে