১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: অনাস্থা ভোট নিয়ে চলছে ধুন্ধুমার৷ তারই মধ্যে এবার সরাসরি তৃণমূলের মহিলা কাউন্সিলরকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠল বিজেপি নেতা ও তাঁর সহযোগীদের বিরুদ্ধে৷ আক্রান্ত তৃণমূল কাউন্সিলর তিন নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দীপালি বিশ্বাস৷  

                             [আরও পড়ুন: অবাক কাণ্ড! ফুল, দক্ষিণা-সহ চারশো বছরের পুরনো বিগ্রহ ফেরাল চোর]

গত ১৬ জুলাই ছিল বনগাঁ পুরসভার অনাস্থা ভোট৷ পূর্ব নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী ওই দিন তিনিও ভোট দিতে তৃণমূলের ৯ জন কাউন্সিলর বনগাঁ পুরসভায় গিয়েছিলেন৷ ওই দিন অনাস্থা ভোট ঘিরে পুরসভার বাইরে তৃণমূল ও বিজেপি কর্মী সমর্থকদের মধ্যে দ্বৈরথ নিয়ে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় পুরসভা ও তার আশপাশের চত্বর৷ একদিকে তৃণমূল আর অন্যদিকে বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে অশান্তি বা অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে পুলিশি নিরাপত্তায় জোর দেওয়ার পাশাপাশি ১৪৪ ধারা জারি করা হয় পুরসভা চত্বরে৷ তবুও শেষ পর্যন্ত বোমাবাজি, ইটবৃষ্টি, লাঠিচার্জ, কাঁদানে গ্যাস সব কিছুরই সাক্ষী থেকেছে বনগাঁ৷

আক্রান্ত কাউন্সিলরের অভিযোগ, অনাস্থা ভোটের সময় পেরিয়ে যাওয়ায় ও ধুন্ধুমার কাণ্ডের পর তাঁর সহযোগী তৃণমূলের অন্যান্য কাউন্সিলরের সঙ্গেই পুরসভা ত্যাগ করে বেরিয়ে আসার সময় ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিয়ে বিজেপি সমর্থকরা উত্তেজিত হয়ে চড়াও হন কয়েকজন তৃণমূল কাউন্সিলরের ওপর৷ তার মাঝে পড়ে যান দীপালি দেবী৷ তাঁর আরও অভিযোগ, ঘটনাস্থলে সামনে দাঁড়িয়ে থেকে দলীয় কর্মী-সমর্থকদের উৎসাহিত করছিলেন বিজেপির বারাসত জেলা সাংগঠনিক সহ-সভাপতি দেবদাস মণ্ডল৷ কয়েকশো বিজেপি কর্মী তৃণমূল কাউন্সিলরদের তাড়া করলে, প্রাণ বাঁচাতে স্থানীয় একটি দোকান ঘরে আশ্রয় নেন দীপালিদেবী৷ তড়িঘড়ি দোকান মালিক শাটার নামানোর সময় মাথায় আঘাত লাগে তাঁর৷ সেই সুযোগে উত্তেজিত বিজেপি সমর্থকরা দীপালিদেবী ও তৃণমূলের আরেক মহিলা কাউন্সিলরের শাড়ির আঁচল ধরে টেনে  শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে বলে অভিযোগ৷

 [আরও পড়ুন: ‘১৯-এ হাফ, একুশে সাফ’, তৃণমূলের শহিদ দিবসকে খোঁচা বাবুলের]

ঘটনায় অভিযুক্ত বিজেপি নেতা দেবদাস মণ্ডল ও কয়েকজন বিজেপি কর্মীর বিরুদ্ধে বনগাঁ থানায় অভিযোগ জানান আক্রান্ত কাউন্সিলর দীপালি বিশ্বাস৷ পুলিশ অভিযোগের কথা স্বীকার করে নিলেও এ বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নিয়ে মুখ খুলতে চায়নি৷ রবিবার তৃণমূলের শহিদ দিবসে কলকাতায় গিয়েছিলেন দীপালিদেবী৷ তাই আক্রান্ত কাউন্সিলরের দেখা না মিললেও তাঁর স্বামী নির্মল বিশ্বাস সমস্ত ঘটনা প্রকাশ্যে জানান৷ ঘটনায় অভিযুক্ত বিজেপি নেতা দেবদাস মণ্ডলের অভিযোগ, তাঁকে বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় জড়ানো হচ্ছে৷ দ্রুত দোষীদের গ্রেপ্তারির দাবি তুলেছেন তিনি৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং