BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভোট-পরবর্তী হিংসা অব্যাহত, মালদহে তৃণমূল কর্মীকে কুপিয়ে খুন

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: April 26, 2019 8:52 am|    Updated: April 26, 2019 5:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোট মিটলেও রাজনৈতিক অশান্তি অব্যাহত মালদহে৷ খুন হয়ে গেলেন এক তৃণমূল কর্মী। রাতে দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ চলাকালীন তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। সংঘর্ষে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। বিজেপির দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে তৃণমূল। যথারীতি অভিযোগ অস্বীকার করেছে গেরুয়া শিবির।

[ আরও পড়ুন: মহুয়াকে যৌন হেনস্তামূলক মন্তব্য, বিজেপি নেতাকে শাস্তির নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের]

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃতের নাম সনাতন মহালদার। বাড়ি মালদহ উত্তর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত পুকুরিয়ার আড়াইডাঙা পঞ্চায়েতের সিমলা গ্রামে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাতে গ্রাম নাম সংকীর্তনের আসর বসেছিল। আসর চলাকালীন আচমকাই দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষে শুরু হয়ে যায়। অভিযোগ, সনাতনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপায় কয়েকজন দুষ্কৃতীরা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় মালদহ জেলা হাসপাতালে। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। হাসপাতালে সনাতন মহালদারকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। সংঘর্ষে আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। তাঁরা সকলেই ভরতি মালদহ জেলা হাসপাতালে।

জানা গিয়েছে, এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের সক্রিয় কর্মী হিসেবে পরিচিত ছিলেন সনাতন মহালদার। এ রাজ্যের শাসকদলের স্থানীয় নেতৃত্বের অভিযোগ, তাঁকে পরিকল্পনামাফিক কুপিয়ে খুন করেছেন বিজেপি কর্মীরা। যদিও, তৃণমূল কর্মীকে খুনের অভিযোগ অস্বীকার করেছে পদ্মশিবিরের স্থানীয় নেতারা। ঘটনায় মালদহের পুকুরিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। গত মঙ্গলবার তৃতীয় দফায় ভোট মিটেছে মালদহ ও মুর্শিদাবাদের দুটি করে এবং দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাট লোকসভা আসনে। ভোটের দিন মুর্শিদাবাদের ভগবানগোলায় বুথের খুব কাছে তৃণমূল-কংগ্রেসের সংঘর্ষে মাঝে পড়ে প্রাণ হারান টিয়ারুল আবুল কালাম নামে এক ব্যক্তি। তার রেশ এখনও কাটেনি৷ তারই মধ্যে মালদহে তৃণমূল কর্মীকে এমন নৃশংস হত্যার ঘটনা সামনে আসায় আতঙ্ক বাড়ছে জেলাবাসীর৷ 

[ আরও পড়ুন: গত পঞ্চাশ বছরে রাজ্যের এই বুথে একবারও হারেনি বামেরা]  

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement