৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: সরকারি পরিষেবা মিলছে না৷ মুখ্যমন্ত্রীর পাবলিক গ্রিভান্স সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্নেল দীপ্তাংশু চৌধুরির কাছে এমনই অভিযোগ করলেন অযোধ্যা পাড়ার ও তৎসংলগ্ন এলাকার মানুষজন৷ ক্ষোভের সুরে জানালেন, পানীয় জল পাচ্ছেন না তাঁরা, মিলছে না বার্ধক্য ভাতা, অমিল আবাস যোজনার সহায়তা৷ ফলে খুবই কষ্টে দিন কাটছে তাঁদের৷

[ আরও পড়ুন: কফিনবন্দি হয়ে শেষবার বাড়ি ফিরল জওয়ান, গান স্যালুটে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ]

জানা গিয়েছে, শনিবার পুরুলিয়ার তেলিয়াভাসা, হাতিনাদা, ভুঁইঘরা-সহ অযোধ্যা হিলটপ এলাকাতে আম জনতার সঙ্গে কথা বলেন কর্নেল দীপ্তাংশু চৌধুরি৷ তাঁর সঙ্গে ছিলেন পুরুলিয়া জেলা পরিষদের মেন্টর অঘোর হেমব্রম। প্রথমেই অযোধ্যা পাহাড়ের মাথায় বাঘমুন্ডি ব্লকের তেলিয়াভাসা গ্রামে যান দীপ্তাংশু চৌধুরি। গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি৷ শোনেন অভিযোগের দীর্ঘ তালিকা৷ জানতে পারেন, সরকারি সুযোগ–সুবিধা সঠিকভাবে পাচ্ছে না গ্রামবাসীরা। কিছুদিন আগে সেখানে ঝাঁ চকচকে প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্বোধন হলেও, নেই চিকিৎসক। একইসঙ্গে গ্রামগুলির বহু বৃদ্ধ–বৃদ্ধারা জানান, তাঁরা বার্ধক্য ভাতা পাচ্ছেন না৷ এমনকী পানীয় জলের সমস্যার কথাও বলেন তাঁরা৷ এখানেই শেষ নয়, ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচী নিয়েও হতাশাজনক তথ্য পান পাবলিক গ্রিভান্স সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত এই তৃণমূল নেতা৷

[ আরও পড়ুন: বঙ্গোপসাগরে শক্তি বাড়াচ্ছে নিম্নচাপ, দক্ষিণবঙ্গে দিনভর বৃষ্টির সম্ভাবনা ]

সূত্রের খবর, পাহাড়ের বাসিন্দাদের থেকে অভিযোগ শুনেই, প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন দীপ্তাংশু চৌধুরি৷ জানতে পারেন, জল সমস্যা মেটাতে মার্বেল লেককে কাজে লাগাতে চাইছে পুরুলিয়া জেলা প্রশাসন। এরপরই ওই মার্বেল লেক এলাকাও ঘুরে দেখেন তিনি। প্রসঙ্গত, গত কয়েক সপ্তাহে মুখ্যমন্ত্রীর পাবলিক গ্রিভান্স সেলেও পুরুলিয়া থেকে একাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে৷ সংখ্যাটা তিরিশেরও বেশি৷ যা খতিয়ে দেখতেই এই জেলার প্রত্যন্ত গ্রামে পা রাখেন কর্নেল দীপ্তাংশু চৌধুরি। যদিও পুরুলিয়া জেলা প্রশাসনের তরফে জানা গিয়েছে, এটা তাঁর রুটিন ভিজিট।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং