BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘রাস্তা জুড়ে খড়গ হাতে দাঁড়িয়ে আছে উন্নয়ন’, তৃণমূলের দেওয়াল লিখনে শঙ্খ ঘোষের কবিতা!

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 19, 2019 6:21 pm|    Updated: March 19, 2019 7:42 pm

TMC's graffiti quoting Shankha Ghosh's poem sparked row

নন্দন দত্ত, সিউড়ি:  ‘দেখ খুলে তোর তিন নয়ন/রাস্তা জুড়ে খড়গ হাতে দাঁড়িয়ে আছে উন্নয়ন’।  কবি শঙ্খ ঘোষের কবিতার এই লাইন একসময় বেশ সমালোচিত হয়েছিল বাংলার রাজনৈতিক মহলে। কবির পরিচয়, কাব্যপ্রতিভা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। এবার লোকসভা ভোটের প্রচারে তাঁর দলের কর্মীরাই কবির ওই পংক্তি তুলে বীরভূমের বিভিন্ন জায়গায় দেওয়াল লিখন শুরু করেছে।  কোথাও আবার দেওয়াল লিখনে বিজেপি কর্মীদের মারধরে প্ররোচনাও দেওয়া হয়েছে৷ যেমন লেখা রয়েছে – ‘কুকুর, বিড়াল মেরো না/বিজেপি পেলে ছেড়ো না৷’ বীরভূমে এধরনের দেওয়াল লিখনের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি৷

deoal-likhan

কংগ্রেসের জেতা ৪ আসন বাদে দ্বিতীয় প্রার্থীতালিকা প্রকাশ বামফ্রন্টের

গত কয়েকবছরে রাজ্যে প্রভূত উন্নয়ন হয়েছে, এই স্লোগানকেই বরাবর ভোটপ্রচারের হাতিয়ার করে শাসকদল তৃণমূল৷ বিভিন্ন জায়গায় জনসমর্থন অপেক্ষা বাহুবল প্রয়োগেই ভোটে জেতার অভিযোগ ওঠে নেতাদের বিরুদ্ধে৷ প্রশ্ন ওঠে গণতান্ত্রিক পরিকাঠামো নিয়েও৷ আর বীরভূম জেলা সভাপতির বক্তব্যে একেবারে অন্যমাত্রা পায় ‘উন্নয়ন’ শব্দটি৷ এক সভায় তিনি স্পষ্ট বলেছিলেন, ‘রাস্তায় বেরোলেই দেখবেন, উন্নয়ন দাঁড়িয়ে৷’ নিন্দুকেরা বলেন, অনুব্রত এর মাধ্যমে বাহুবলই দেখাতে চেয়েছেন৷ এসব নিয়েই বর্ষীয়ান কবি শঙ্খ ঘোষ লিখেছিলেন ‘মুক্ত গণতন্ত্র’ কবিতা৷ যার তৃতীয় স্তবকে রয়েছে, ‘দেখ খুলে তোর তিন নয়ন/ রাস্তা জুড়ে খড়গ হাতে দাঁড়িয়ে আছে উন্নয়ন।’ সেসময় বেশ বিতর্ক তৈরি হয়েছিল৷ অনুব্রত নিজেও নানা মন্তব্য করে সমালোচিত হয়েছিলেন৷ পরে তিনি ব্যাখ্যা দেন, দিকে দিকে এতটাই উন্নয়ন হয়েছে যে বাড়ির বাইরে বেরোলেই তার আঁচ পাওয়া যায়৷ তাই তিনি ও’কথা বলেছিলেন৷

‘মিতা’ হলেন ‘মিত্রা’, বর্ধমান-দূর্গাপুর কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থীর নামবিভ্রাট

কিন্তু উনিশের লড়াইয়ে সেসব কথাই লেখা হচ্ছে তৃণমূলের দেওয়াল লিখনে৷ বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অসিত মালের জন্য দেওয়াল লিখনে এমনই দেখা গেল৷ তবে শঙ্খ ঘোষের ওই উদ্ধৃতি লেখা যে ভুল হয়ে গিয়েছে, তা বুঝেছে নেতৃত্ব৷ সেটা মুছতে গিয়ে ফের আরেক বিবাদ শুরু হয় ময়ূরেশ্বরে। চোখে পড়ে আরেকটি দেওয়াল লিখন – ‘কুকুর, বিড়াল মেরো না/বিজেপি পেলে ছেড়ো না৷’ নির্বাচন কমিশনের কাছে এসব নিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি। দলের জেলা সাধারণ সম্পাদক কালোসোনা মণ্ডল বলেন, “গুড়-বাতাসা বিতরণ, রাস্তার ধারে উন্নয়ন আর দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাবে না। কারণ, এবার কেন্দ্রীয় বাহিনী ভোট পরিচালনা করবে।” তবে ভাইরাল হতেই দেওয়াল লিখনের ছবি দিয়ে অ্যাপে অভিযোগ জানানোর কথা জানিয়েছেন ময়ূরেশ্বর মণ্ডল কমিটিরর সদস্য কাঞ্চন ঘোষ। তিনি বলেন, ‘যে নেতার নির্দেশে এসব লেখা হয়েছে, তাঁকে নিজের হাতে মুছতে হবে।’ তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল অবশ্যয বিষয়টিকে এতটা গুরুত্ব দিচ্ছেন না৷ তিনি বলেন, ‘ওই কথা দিয়ে দেওয়াল লিখন করা ঠিক হয়নি। আমি খোঁজ নিয়ে দেখছি।’ জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা জানিয়েছেন ‘নির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ছবি : সুশান্ত পাল

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে