৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: স্বর্ণ ব্যবসায়ীর উপর গুলিচালনার ঘটনায় বুধবার উত্তপ্ত হয়ে উঠল পশ্চিম বর্ধমানের পাণ্ডবেশ্বর এলাকা। খোট্টাডিহি কোলিয়ারিতে মনোজ বর্মা নামে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে লক্ষ্য করে চলে গুলি। ঘাড়ের পিছনে থেকে গুলি করায় তাঁর গলা এফোঁড়-ওফোঁড় করে তা বেরিয়ে যায়। গুরুতর জখম অবস্থায় তিনি ভরতি দুর্গাপুরের এক বেসরকারি হাসপাতালে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি বলে পুলিশ সূ্ত্রে খবর।
পুলিশ সূত্রে খবর, বুধবার খোট্টাডিহি কোলিয়ারির বাসিন্দা বছর পঁয়তাল্লিশের মনোজ বর্মা সাড়ে ন’টা নাগাদ দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফিরছিলেন। সেসময় বাইক চড়ে বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী তাঁকে ধাওয়া করে। একটি ফাঁকা জায়গায় এসে তাঁরা গুলি চালায়। গুলিটি মনোজের ঘাড়ে লাগলেও, তিনি প্রাণে রক্ষা পান। গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। মনোজবাবুর চিৎকার শুনে আশেপাশের বাড়ির মানুষজন বেরিয়ে এসে দেখেন, তিনি রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন। তাঁরাই তড়িঘড়ি দুর্গাপুরের সিটি সেন্টারের কাছে একটি বেসরকারি হাসপতালে নিয়ে গিয়ে ভরতি করেন। অস্ত্রোপচারের পর আপাতত মনোজবাবুর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: শক্তিবৃদ্ধি ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের, সপ্তাহান্তে ঝোড়ো হাওয়া-ভারী বৃষ্টির আশঙ্কা]

মনোজ বর্মার ভাই শ্রবণ জানিয়েছেন, স্বর্ণ ব্যবসায়ী দাদার কোনও শত্রু ছিল না সেভাবে। তাহলে আচমকা কে বা কারা তাঁর উপর গুলি চালাল, কেনই বা এমন হামলা – তা কিছু বুঝেই উঠতে পারছে না পরিবার। পাণ্ডবেশ্বর থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। মনোজবাবু আরও কিছুটা সুস্থ হলে, তাঁর বয়ান নেওয়া হবে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। তাহলে রহস্যের জট কিছুটা হলেও কাটবে বলে আশাবাদী তদন্তকারীরা।
এমনিতেই কোলিয়ারি অঞ্চলে সাধারণ মানুষের মধ্যে নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ কাজ করে। মাফিয়াদের দৌরাত্ম্যে যখনতখন আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা বিরল নয়। স্বর্ণ ব্যবসায়ী মনোজ বর্মার উপর হামলার সঙ্গেও তেমন কোনও ঘটনা জড়িত কি না, তা বুঝতে চাইছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে মনোজবাবুর পরিবার।

[আরও পড়ুন: বন্ধ ঘরে অগ্নিদগ্ধ হয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় বৃদ্ধ খুন, গুরুতর জখম স্ত্রী-মেয়ে]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং