BREAKING NEWS

২৯ চৈত্র  ১৪২৭  সোমবার ১২ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

একাধিক নারীর সঙ্গে অভব্য আচরণ! অপসারিত কাশীপুরের নির্বাচনী পর্যবেক্ষক

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: March 24, 2021 7:36 pm|    Updated: March 24, 2021 7:36 pm

An Images

ফাইল ছবি

শুভঙ্কর বসু: পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনী ইতিহাসে (WB Elections 2021) সম্ভবত প্রথমবার। একাধিক নারীর সঙ্গে অভব্য আচরণের অভিযোগে সরিয়ে দেওয়া হল পুরুলিয়ার (Purulia) কাশীপুরের (Kashipur) নির্বাচনী পর্যবেক্ষককে। বুধবার নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে।

জানা গিয়েছে, উত্তরপ্রদেশ ক্যাডারের আইপিএস নরেন্দ্র প্রসাদ পাণ্ডের বিরুদ্ধে একাধিক মহিলার সঙ্গে অভব্য আচরণের অভিযোগ উঠেছিল। আবার অনেকেই অভিযোগ তুলেছিলেন, একাধিক মহিলার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক রয়েছে। এমনকী মহিলাদের সঙ্গে রেস্তরাঁতেও নাকি দেখা গিয়েছিল তাঁকে। আর এই অভিযোগ পাওয়ার পরই নির্বাচনী পর্যবেক্ষক নরেন্দ্র প্রসাদ পাণ্ডেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় । বুধবার নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: আমফানের পর ফের ধেয়ে আসছে ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড়! কী বলছে হাওয়া অফিস?]

আসলে ভোট প্রক্রিয়া সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে নির্বাচনী পর্যবেক্ষককে নিয়োগ করে নির্বাচন কমিশন। সাধারণত ভিনরাজ্যের অফিসারদেরই এ রাজ্যে ভোটকেন্দ্রগুলির অবজার্ভার হিসেবে নিয়োগ করা হয়। তাঁদের উপর একাধিক দায়িত্ব থাকে। তাঁদেরই ‘চোখ ও কান’ বলে গণ্য করে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু নরেন্দ্র প্রসাদের এই কাণ্ড সামনে আসায় স্বভাবতই মুখ পুড়েছে কমিশনের। আর তাই এই সিদ্ধান্ত কমিশনের।
এদিকে, জয়পুরে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিলের ঘটনার পর নয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এবার থেকে মনোনয়ন ঝাড়াই-বাছাই, পর্যালোচনা এবং প্রয়োজনে বাতিল করার পদ্ধতিটির উপর নজরদারি থাকবে পর্যবেক্ষকদের। দরকার হলে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসারকে এড়িয়ে তারা কমিশনে সরাসরি রিপোর্ট জমা দেবেন। যার ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেবে কমিশন।

ঠিক কী করতে হবে পর্যবেক্ষকদের? কমিশনের সূত্রে খবর, এবার প্রার্থীদের মনোনয়নপর্ব থেকে স্ক্রুটিনি এবং প্রার্থীপদ প্রত্যাহার পর্যন্ত গোটা প্রক্রিয়ায় পর্যবেক্ষকদের সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। মনোনয়নপর্বের সমস্ত ভিডিও ক্লিপিং খুঁটিয়ে দেখতে হবে। স্ক্রুটিনির ক্ষেত্রেও সতর্ক নজর রাখতে হবে। কোনও প্রার্থী মনোনয়ন বাতিল হলে, কেন তা হল, সে বিষয়ে সমস্ত তথ্য গুরুত্ব দিয়ে যাচাই করে অনিয়ম মনে হলে সরাসরি কমিশনে রিপোর্ট পাঠাতে হবে। প্রার্থীপদ খারিজ হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট সম্ভাব্য প্রার্তীর তরফে কোনও অভিযোগ থারলে তৎক্ষণাৎ তা অনুসন্ধান করে ফলাফল কমিশনকে জানাতে হবে এবং সে ব্যাপারে সম্ভাব্য প্রার্থীকেও অবগত করতে হবে।

[আরও পড়ুন: ‘আগে মহিলাদের জন্য রেলের ভাড়া মকুব করে দেখাক’, ইস্তাহার নিয়ে বিজেপিকে খোঁচা অভিষেকের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement