BREAKING NEWS

২ বৈশাখ  ১৪২৮  শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

WB Assembly Election 2021: 'সিঙ্গুরকে ধোঁকা দিয়েছেন মমতা', হরিপাল থেকে তীব্র আক্রমণ মোদির

Published by: Paramita Paul |    Posted: April 3, 2021 4:21 pm|    Updated: April 3, 2021 4:45 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এগারোয় রাজ্যের পট পরিবর্তনের সময় আন্দোলনের ভরকেন্দ্র ছিল নন্দীগ্রাম ও সিঙ্গুর। এই দুই এলাকার জমি আন্দোলন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক জীবনেও তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল। এবার একুশের নির্বাচনের আগে সেই সিঙ্গুর নিয়ে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) বিরুদ্ধে ‘প্রতারণা’র অভিযোগ তুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শনিবার হরিপালের সভা থেকে শ্লেষ, “সিঙ্গুরের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতারণা করেছেন। রাজনীতির স্বার্থে সিঙ্গুরকে ব্যবহার করেছেন উনি।” হুগলির চাষিদের দুরাবস্থা নিয়েও তৃণমূল নেত্রীকে বিঁধলেন বিজেপির তারকা প্রচারক (PM Narendra Modi)।

বাংলার দু’দফা নির্বাচন শেষ। ৬ এপ্রিল হুগলির-সহ মোট তিন জেলার ৩১ আসনে ভোটগ্রহণ। লোকসভায় হুগলির মানুষ বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়কে মনোনীত করেছেন। বিধানসভা নির্বাচনেও সেই ধারা বজায় রাখতে মরিয়া গেরুয়া শিবির। রাজনৈতির মহলের দাবি, সেই কারণেই রাজ্য রাজনীতির পট পরিবর্তনকারী সিঙ্গুর ইস্যুকেই হাতিয়ার করছে বিজেপি। খোদ প্রধানমন্ত্রী মুখেও সেই কথা উঠে এল। রাজ্যের শিল্প পরিস্থিতি নিয়ে অভিযোগ করে বলেন, “বাংলায় পুরনো শিল্প বন্ধ। নতুন করে শিল্প আসেনি। চাকরি নেই।” প্রশ্ন ছুঁড়লেন, “গত ১০ বছরের কাজে রিপোর্টের কার্ড কোথায়?” 

[আরও পড়ুন : ‘দিদি, গণতন্ত্র খেলা নয়, মানুষের সেবার পথ’, তারকেশ্বর থেকে তীব্র কটাক্ষ মোদির]

তবে শুধু শিল্প নয়, কৃষকদের কথাও উঠে এল প্রধানমন্ত্রীর মুখে। কৃষকদের দুরাবস্থার জন্য রাজ্য সরকারকে দায়ি করলেন মোদি। অভিযোগ করলেন, “সিঙ্গুরের চাষিদের অবস্থা খারাপ হয়েছে। নতুন কোল্ড স্টোরেজ শুরু হয়নি। পুরনো কোল্ড স্টোরেজগুলো তৃণমূলের সিন্ডিকেট চালায়।” সেই সঙ্গে বিজেপি ক্ষমতায় এলেই কৃষকদের অ্যাকাউন্টে ১৮ হাজার টাকা জমা পড়বে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর কথায়, “বিজেপি সরকার গড়লে দুর্গাপুজোর আগেই চাষিদের অ্যাকাউন্টে ১৮ হাজার টাকা জমা পড়বে।”  একইসঙ্গে মোদির নির্দেশ, “যেখানে ভোট হয়েছে। সেখানে সরকারি আধিকারিকদের বলছি, চাষিদের নামের তালিকা তৈরি করতে শুরু করুন।” এদিনের সভা থেকে সিঙ্গুরের তারকেশ্বর, মিষ্টি দই-সহ সমস্ত আবেগকে ছুঁয়ে গেলেন প্রধানমন্ত্রী। উঠে এল শিব ভক্তদের মনের কথাও। তিনি একসূত্রে বাঁধলেন বারাণসী থেকে তারকেশ্বরকে। কিন্তু তাঁর এই প্রচারের প্রভাব ভোটবাক্সে পরে কিনা তা ২ মে বোঝা যাবে। 

[আরও পড়ুন : বিজেপি পর্ব অতীত! এবার নির্দল হিসেবে মনোনয়ন দিলেন লাভপুরের মনিরুল ইসলাম]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement