BREAKING NEWS

২৭ বৈশাখ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কোচবিহারের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর, দোষীদের কড়া শাস্তির আরজি

Published by: Paramita Paul |    Posted: April 10, 2021 1:29 pm|    Updated: April 10, 2021 4:37 pm

pm-mODI

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চতুর্থদফা ভোটের দিন রক্তাক্ত হল বাংলার মাটি। কোচবিহারে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানের গুলিতে মৃত্যু হয়েছে চারজনের। শনিবার সকালের এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বললেন, “অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা। মৃতদের পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রয়েছে। নির্বাচন কমিশনকে তদন্তের আবেদন জানাব।” বকলমে এই মর্মান্তিক ঘটনার দায় চাপালেন তৃণমূলের ঘাড়েই। 

শনিবার শিলিগুড়িতে সভা করলেন বিজেপির হেভিওয়েট প্রচারক। সেই সভা থেকে তৃণমূল সরকারের সমালোচনার পর কোচবিহারের ঘটনায় শোকপ্রকাশ করলেন তিনি। বললেন,  “অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা। মৃতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা রইল।” এর পরই ঘটনার দায় তৃণমূলের ঘাড়ে চাপিয়ে বললেন, “বিজেপির প্রতি মানুষের সমর্থন দেখে তৃণমূল ও তার গুন্ডাবাহিনী ভয় পাচ্ছে। তাই ওরা এসব করছে।” এর পরই রাজ্যের শাসকদলকে বিজেপির তারকা প্রচারকের হুঁশিয়ারি, “বাংলায় তৃণমূলের স্বেচ্ছাচারিতা আর চলবে না।”  একইসঙ্গে কোচবিহারের ঘটনায় কমিশনের কাছে দোষীদের কড়া শাস্তির আরজি জানিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন : চতুর্থ দফার নির্বাচনে মহিলা ও তরুণ ভোটারদের বিশেষ বার্তা মোদি-মমতার]

এদিনের সভা থেকে মোদি আরও বলেন, “তৃণমূল নেত্রী শেখাচ্ছেন কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপর কীভাবে হামলা করতে হবে। কিন্তু মনে রাখবেন, দিদি এই হিংসা আপনাকে বাঁচাতে পারবে না। তৃণমূলের বিদায় আসন্ন।” কেন্দ্রীয় বাহিনীকে গুন্ডারা ভয় দেখাচ্ছে বলে অভিযোগ করে বিজেপির তারকা প্রচারক বলেন, “ওঁরা (কেন্দ্রীয় বাহিনী জওয়ান) জঙ্গিদের ভয় পায় না, বিরাট চ্যালেঞ্জকে ভয় না, আপনি কি ভাবেন গুন্ডাদের ধমকে ওঁরা ভয় পাবেন?”

এদিনের সভা থেকে রাজ্যে পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবের উচ্ছেদ মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী। দিন কয়েক আগে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। তাতে দেখা গিয়েছে, “এখানে বিজেপি-বিজেপি করবেন না। এই জায়গা সরকারি, এখানে থাকুন। সরকার থেকে যা সাহায্য লাগবে, আমরা করব। আর যদি আমাদের বিরোধিতা করেন, তাহলে এই জায়গা থেকে উৎখাত করব। আমি গৌতম দেব। যা বলি তাই করি। আমার কাছে সব রিপোর্ট আছে। ওসব সন্ন্যাসী-টন্ন্যাসী আমাকে দেখাবেন না। আমি নিজেও সন্ন্যাসী। বিজেপি করবেন না। সব তৃণমূলকে ভোট দিতে হবে। কোনও কথা শুনব না।” এই মন্তব্যের সমালোচনা করে বললেন, “রাজ্যের কোনও মন্ত্রী কি এরকম করতে পারেন? আমি প্রধানমন্ত্রী হয়েও কি এই কাজ করতে পারি? কোনও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় এই কাজ হতে পারে না।”

[আরও পড়ুন : ‘আবারও বলছি বাংলায় বিজেপি ১০০ পেরোবে না’, বিতর্কিত অডিও ক্লিপ নিয়ে টুইট পিকের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement