১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘ময়নাতদন্তের আগেই আত্মহত্যার তত্ত্ব’, বিধায়কের মৃত্যুতে পুলিশের ভূমিকায় সন্দেহ রাজ্যপালের

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 13, 2020 1:27 pm|    Updated: July 13, 2020 2:01 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে বারবার রাজ্যের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankhar)। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়েও প্রশ্নও তুলেছেন তিনি। এবার উত্তর দিনাজপুরের বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের রহস্যমৃত্যু নিয়ে ফের রাজ্য পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন রাজ্যপাল। ময়নাতদন্তের আগে কেন বিজেপি বিধায়কের রহস্যমৃত্যুকে আত্মহত্যা বলছে পুলিশ, সে বিষয়ে প্রশ্ন তাঁর।

সোমবার টুইট করে তিনি জানান, “হেমতাবাদের বিধায়কের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার নিয়ে পুলিশ দাবি করছে আত্মহত্যা। এটা ধামাচাপা দেওয়ার ইঙ্গিত। নিশ্চয়ই কোনও উদ্দেশ্য রয়েছে।” এছাড়াও ময়নাতদন্তের ভিডিওগ্রাফি করার দাবি জানিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: মর্মান্তিক! দুর্ঘটনায় মায়ের গর্ভ থেকে ছিটকে পড়েও মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ল ন’মাসের ভ্রূণ]

রাজ্যপাল আরেকটি টুইটে লেখেন, “বিশেষজ্ঞ দলের উপস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুযায়ী মৃত বিধায়কের ময়নাতদন্তের ভিডিওগ্রাফি করতে হবে।” মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে নিরপেক্ষ তদন্তেরও দাবি জানিয়েছেন রাজ্যপাল।

উল্লেখ্য, সোমবার সাতসকালে চায়ের দোকান থেকে হেমতাবাদের (Hemtabad) বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের হাত বাঁধা ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। রায়গঞ্জের বিন্দোল পঞ্চায়েতের বালিয়া গ্রামে তাঁর আদি বাড়ি থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে রাস্তার ধারে অবস্থিত ওই চায়ের দোকানটি। পরিবারের দাবি, খুন করা হয়েছে বিধায়ককে। ঘটনায় সিবিআই তদন্তের দাবিও জানিয়েছেন তাঁরা। গেরুয়া শিবিরের তরফেও এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করা হয়েছে। স্থানীয় তৃণমূল যুব নেতা এই ঘটনায় জড়িত বলেই অভিযোগ বিজেপির। যদিও পুলিশের তরফে দাবি করা হয়েছে নিহত ওই বিজেপি নেতার পকেট থেকে একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করা হয়েছে। তাতে দু’জনের নামও পাওয়া গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: বানভাসি উত্তরবঙ্গে ফের ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা, পরিস্থিতি মোকাবিলায় নামল NDRF]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement