BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

বাস সমস্যায় এবার কড়া প্রশাসন, রাস্তায় না নামালে টার্মিনাসে রাখা যাবে না বাস

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 29, 2020 10:01 pm|    Updated: June 30, 2020 1:23 am

An Images

ব্রতদীপ ভট্টাচার্য, বারাসত: অনেক বোঝানো, অনুনয়-বিনয়, বিশেষ সহায়তা দান হয়েছে। তা সত্ত্বেও আনলক ওয়ান পর্বে রাস্তায় বাস নামাতে হলে, ভাড়াবৃদ্ধির সিদ্ধান্তে অনড় মনোভাব দেখিয়েছে বাস মালিক সংগঠনগুলো। এই পরিস্থিতিতে এবার ধৈর্যের বাঁধ ভাঙল সরকারেরও। সোমবার বারাসতের তিতুমির বাস টার্মিনাস থেকে বেশিরভাগ বাসই রাস্তায় নামেনি। প্রশাসনিক কর্তারা বাস মালিকদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করলেও কোনও সুরাহা সন্ধেবেলা আরটিও জানিয়ে দেন, রাস্তায় বাস না নামালে টার্মিনাসে থাকবে না। টার্মিনাসকে গ্যারাজ হিসেবে ব্যবহার মোটেই বরদাস্ত নয়। অন্যত্র সরিয়ে দেওয়া হবে বাসগুলি। সেই নির্দেশমতো টার্মিনাস থেকে প্রচুর বাস সরিয়ে দেওয়া হল বারাসত স্টেডিয়ামে।

যাত্রী কম, ভাড়া না বাড়ালে বাস চালিয়ে লাভ হচ্ছে না। এই সমস্যার কথা বারবার তুলে ধরেছিল রাজ্যের বাস মালিক সংগঠনগুলো। রাস্তায় বাস পর্যাপ্ত পাওয়াও যাচ্ছিল না। এসব সমস্যা মেটাতে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন প্রশাসনিক কর্তারা। কিন্তু ভাড়াবৃদ্ধির দাবিতে অনড় ছিল সংগঠন। আনলক ওয়ানে বাস পরিষেবা পুরোদমে চালু করতে মুখ্যমন্ত্রী ভরতুকি ঘোষণা করেছিলেন। আগামী ৩ মাস বাস পিছিু ১৫০০০ টাকা ভরতুকি দেবে রাজ্য সরকার, এমনই জানিয়েছিলেন মুখ্যনমন্ত্রী। তবে সেই ভরতুকি গ্রহণ করতে নারাজ বাস সংগঠনগুলি। তারা ভাড়াবৃদ্ধিই চায়।

[আরও পডু়ন: কাকার বিশ্বাসের সুযোগে টাকা চুরি, পলাশিপাড়ার বিধায়কের বাড়ির ঘটনায় গ্রেপ্তার ভাইপো]

আজ থেকে পুরোদমে বাস চালু হওয়ার কথা থাকলেও, সকালেই তাল কেটে যায় উত্তরের শহরতলির গুরুত্বপূর্ণ বারাসতের তিতুমির বাস টার্মিনাসে। সেখান থেকে বেশিরভাগ বাসই বেরয়নি। চালকরা রীতিমত রাস্তায় শুয়ে পড়ে অবরোধ করেন, বাস বের করবেন না বলে। সপ্তাহের শুরুর দিনই উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হয়। চূড়ান্ত পর্যায় পৌঁছয় যাত্রীদের হয়রানি। এখান থেকে হাওড়া, কলকাতার বিভিন্ন গুরুত্বপূ্র্ণ জায়গার বাস ছাড়ে। তবে অধিকাংশ বাস না চলায়, অনেকেই যেতে পারেননি।

[আরও পডু়ন: আন্তঃরাজ্য মোবাইল চুরি ও পাচার চক্রের সন্ধান পূর্ব বর্ধমানে, গ্রেপ্তার ৫]

এরপর সন্ধের দিকে প্রশাসন, পুলিশ সকলে ফের বাস মালিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন। তাঁদের সাফ কথা, সরকারি ভরতুকি নেবেন না, লোকসানে বাস চালাবেন না। ভাড়াই বাড়াতে হবে। এরপর একেবারে কড়া অবস্থান নেয় প্রশাসন। আরটিও অনন্ত সরকার জানিয়ে দেন,      টার্মিনাসকে গ্যারেজ হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না। তাঁর নির্দেশ পেয়ে প্রচুর বাস সরিয়ে দেওয়া হয়। সারাদিন বাস না চলায় যে অচলাবস্থা তৈরি হয়েছিল, প্রশাসন তা সরিয়ে টার্মিনাস সচল করে দেয়। জানা গিয়েছে, সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে আরও ১০০ টি বাস মঙ্গলবার থেকে রাস্তায় নামানো হবে। প্রশাসন সেই ব্যবস্থাই করেছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement