BREAKING NEWS

২১ আষাঢ়  ১৪২৭  সোমবার ৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

আন্তঃরাজ্য মোবাইল চুরি ও পাচার চক্রের সন্ধান পূর্ব বর্ধমানে, গ্রেপ্তার ৫

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 29, 2020 8:41 pm|    Updated: June 29, 2020 8:41 pm

An Images

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: আন্তঃরাজ্য মোবাইল চুরি ও পাচার চক্রের সন্ধান পেল পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর থানার পুলিশ। ঘটনায় মোট ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধৃতদের কাছ থেকে মোট ৫৭টি মোবাইল সেটও বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। কলকাতা থেকে চোরাই মোবাইল সংগ্রহ করে তা উত্তরবঙ্গ এবং বিহারের কাটিহারের বিভিন্ন জায়গায় তা পাচার করা হত। আর জামালপুর থানার নুড়ি গ্রামে একজন ছিল লিঙ্কম্যান। পুলিশ তাকেও গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের নাম বলরাম দাস, সঞ্জয়কুমার তাঁতি, মুরলিকুমার দাস, মিঠুন কুমার সিং ও উজ্জ্বল হাওলাদার। উজ্জ্বলের বাড়ি নুড়ি গ্রামে। সেখানে তার একটি মোবাইলের দোকানও রয়েছে। বলরামের বাড়ি উত্তর দিনাজপুরের করণদিঘি থানার বালিবরে। সঞ্জয়, মুরলি ও মিঠুন বিহারের কাটিহারের হাসানগঞ্জ ও আজমনগর এলাকার বাসিন্দা। সোমবার ধৃতদের বর্ধমান আদালতে পেশ করা হয়। বিচারক বলরাম ও উজ্জ্বলকে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। বাকিদের ১২ জুলাই পর্যন্ত বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন সিজেএম রতনকুমার গুপ্তা। যদিও ধৃতরা আদালতে দাবি করেছে তাদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে।

[ আরও পড়ুন: নেশার টাকায় টান, অপহরণের নাটক করে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টায় গ্রেপ্তার শিক্ষক ]

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, জামালপুরের নুড়ি মোড় এলাকায় রবিবার রাতে সন্দেহজনকভাবে একটি চারচাকা গাড়ি দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে ছিল। কয়েকজন গাড়ি থেকে নেমে ঘোরাঘুরি করছিল। স্থানীয়দের সন্দেহ হওয়ায় পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকার বিষয়ে কোনও সদুত্তর দিতে পারেনি। তল্লাশিতে গাড়ির ভিতর থেকে ২৪টি পুরনো মোবাইল সেট পায়। সেগুলি কোথা থেকে পেয়েছে সেই বিষয়ে কোনও সদুত্তর দিতে পারেন তারা। এরপরই পুলিশ ওই চারজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পুলিশের দাবি, জেরায় তারা জানায়, মোবাইল চুরি ও পাচারের কথা। এই কাজে তাদের লিঙ্কম্যান নুড়ি গ্রামের উজ্জ্বল। পুলিশ তাকেও ধরে। তার দোকানে তল্লাশি চালিয়ে ৩৩টি পুরনো মোবাইল সেট উদ্ধার করে। মোবাইলের কোনও কাগজপত্রও সে দেখাতে পারেনি। রাতভর জেরায় ধৃতরা পুলিশকে জানিয়েছে, কলকাতা থেকে চোরাই মোবাইল কিনে আনে উজ্জ্বল। তারপর তার দোকান থেকেও কিছু সেট বিক্রি করে। বাকি চোরাই মোবাইল সেটগুলি বলরামের মাধ্যমে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলা ও বিহারে পাচার করে দেয়। পুলিশ ধৃতদের জেরা করে জানার চেষ্টা করছে এই চক্রে আর কারা জড়িত রয়েছে। কলকাতায় চুরি চক্রে আর কারা কারা রয়েছে।

[ আরও পড়ুন: ভাঙল সব অতীত রেকর্ড, রাজ্যে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ছ’শোরও বেশি মানুষ ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement