BREAKING NEWS

১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

হালিশহরে বিজেপির মণ্ডল সভাপতির বাড়িতে ‘হামলা’, মারধর দাদা ও বৃদ্ধা মা’কে

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 22, 2021 11:15 am|    Updated: April 22, 2021 11:48 am

West Bengal Polls: TMC-BJP clash in Bijpur in polling booth | Sangbad Pratidin

অর্ণব দাস, বারাসত: ভোটের দিন সাতসকালে উত্তপ্ত বীজপুর (Bijpur)। বিজেপির মণ্ডল সভাপতির বাড়িতে হামলার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ওই বিজেপি নেতার পরিবারের সদস্যদের মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। রেয়াত করা হয়নি তাঁর বয়স্ক মাকেও। ঘটনায় বিজেপির বিরুদ্ধে পালটা তোপ দেগেছে তৃণমূল। তাদের দাবি, বিজেপিই এলাকার ভোটারদের ভয় দেখাচ্ছিল।

অভিযোগ, হালিশহর পুরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের কোনা কলোনির বাসিন্দা নিতাই রায় ভোট দিতে গেলে তাঁর বাড়িতে হামলা চালায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। নিতাই রায় বিজেপির মণ্ডল সভাপতি। তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁর বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে বলে অভিযোগ। নিতাইবাবুর দাবি, বাধা দিতে গেলে মারধর করা হয় তাঁর পরিবারের সদস্যদেরও।নিতাই রায়ের দাদা ঘটনায় জখম হয়েছেন।এমনকী তাঁর মাকেও মারধর করা হয়েছে। গোটা ঘটনায় বেশ কয়েকজন জখম হয়েছেন।

[আরও পড়ুন: ভোটের দিন সকালে হাবড়ায় উদ্ধার রক্তাক্ত দেহ, কাঁচরাপাড়ায় মাথা ফাটল তৃণমূল নেতার]

এই ঘটনার জেরে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।তৃণমূল (TMC) পালটা অভিযোগ করে, হুমকি দিচ্ছে বিজেপি। শাসকদলের কর্মী মাধব দাসকে লক্ষ্য করে ছুরি চালানোর অভিযোগ ওঠে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। প্রকাশ্যেই তৃণমূল-বিজেপি (BJP) একে অপরকে হুমকি দেওয়া শুরু করে। ভাঙচুর করা হয় দুই শিবিরের ক্যাম্প অফিস।খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় বীজপুর থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। হাজির হন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরাও। ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। এখনও গোটা এলাকায় চাপা উত্তেজনার পরিবেশ বজায় আছে।

[আরও পড়ুন: ‘ভয়মুক্ত হয়ে ভোট দিন’, ষষ্ঠ দফা নির্বাচনের সকালে আহ্বান মোদি-শাহর]

এর আগে হালিশহরের অদূরেই কাঁচরাপাড়ায় তৃণমূলের (TMC) প্রাক্তন কাউন্সিলর উৎপল দাশগুপ্তকে আক্রান্ত হতে হয়। এদিন ভোট শুরুর পরই কাঁচরাপাড়া পুরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডে গন্ডগোলের খবর পাওয়া যায়। দ্রুত সেখানে যান ওই ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর তথা তৃণমূল কাউন্সিলর উৎপল দাশগুপ্ত। সেখানেই বিজেপি কর্মীরা মেরে তাঁর মাথা ফাটিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। যদিও, বিজেপি অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তাদের পালটা দাবি, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরেই এই ঘটনা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে